দেউচা পাচামি নিয়ে আদিবাসীদের ভাষায় প্যাকেজ ছাপিয়ে বিলির নির্দেশ অনুব্রতর

100

বোলপুর: দেউচা–পাচামি প্রস্তাবিত কয়লাখনি নিয়ে আদিবাসীদের ভাষায় প্যাকেজ ছাপিয়ে বিলির জন্য তৃণমূল কর্মীদের নির্দেশে দিলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। পাশাপাশি অুব্রতর নিদান, কেউ মানুষকে ভুল বোঝালে জেলা শাসক কিংবা পুলিশ সুপারকে খবর দিন। রবিবার বোলপুরের গীতাঞ্জলীতে দলের বিজয়া সম্মিলনী অনুষ্ঠানে এভাবেই কয়লাখনি নিয়ে বার্তা দিলেন অনুব্রত মণ্ডল।

এদিন সভায় প্রথমেই কয়েকজন নেতার নাম করে তাদের সতর্ক করে দেন অনুব্রত। মহম্মদবাজার এলাকায় বালির গাড়ি নিয়ন্ত্রণ নিয়েও সতর্ক করেন তিনি। ব্লক সভাপতির উদ্দেশ্যে বলেন, “রাস্তা মেরামত করতে গিয়ে মাথা খারাপ হয়ে যাচ্ছে। ওই রাস্তায় পয়সা নিয়ে বালির গাড়ি চলাচল করতে দেওয়া যাবে না”।

- Advertisement -

এরপর প্রস্তাবিত কয়লাখনি প্রসঙ্গ তুলে অনুব্রত বলেন, ‘কয়লাখনি হলে বীরভূমের উন্নয়ন হবে। এক লক্ষ বেকার ছেলেমেয়ে চাকরি পাবে। কেউ কেউ আদিবাসীদের ভুল বোঝাচ্ছে। তাদের চিহ্নিত করে জেলা শাসক কিংবা পুলিশ সুপারকে জানান। কারণ মুখ্যমন্ত্রী জমি মালিকদের ১৩ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা বিঘে করে দাম দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। যে জমির বর্তমান দাম দেড়-দু লক্ষ টাকা। এছাড়া আদিবাসীদের আসবাবপত্র অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য এক লক্ষ টাকা দিচ্ছে। জমি দাতাদের চাকরি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে সরকার। আদিবাসীদের বিষয়টি বোঝাতে আমরা তাদের ভাষাতেই প্যাকেজ ছাপিয়েছি। আমাদের দলের লোকজন ওই কাগজ আদিবাসীদের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেবে। দেখতে হবে কেউ যেন আদিবাসীদের ভুল বোঝাতে না পারে’। এদিন মঞ্চ থেকে বর্ধমানের আউসগ্রামে দলীয় নেতা খুনে অভিযুক্ত ছয় দলীয় কর্মীকে বহিস্কারের কথা ঘোষণা করেন অনুব্রত। চলতি বছরের ৭ সেপ্টেম্বর দুষ্কৃতীরা তাকে গুলি করে খুন করে। তদন্তে নেমে পুলিশ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করে। তাঁরা সকলেই তৃণমূল কর্মী বলে জানা গেছে। এরপরেই তাদের বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নেয় দল।