দিদি পাশে ঠাঁই হল না অনুব্রতর

430

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: দিদির মঞ্চে ঠাঁই হল না অনুব্রত মণ্ডলের। মঙ্গলবার বীরভূম জেলার জামবুনির সভায় এমন চিত্রই দেখা গিয়েছে। তৃণমূল সুপ্রিমোর সভা মঞ্চে স্থানীয় সাংসদ অসিত মাল, বীরভূমের সাংসদ শতাব্দী রায়, বাসুদেব দাস বাউল, লক্ষ্মণদাস বাউল সহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু মঞ্চে ছিলেন না তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। যদিও সভার শেষে একবার কেষ্টর নাম নেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

মঙ্গলবার বোলপুরের লজ মোড় থেকে জামবুনি পর্যন্ত পদযাত্রায় হাঁটেন মমতা। কিন্তু সেই পদযাত্রায় অনুব্রতকে দেখা যায়নি। যদিও কেষ্টর ঘনিষ্ঠদের সাফাই, দিদি মারাত্মক গতিতে হাঁটেন। ‘হেভিওয়েট’ চেহারা নিয়ে দিদির সঙ্গে হেঁটে পারবেন না জেনেই অনুব্রত ময়দানে নামেননি।

- Advertisement -

কেষ্টর ঘনিষ্ঠরা এমন সাফাই দিলেও জল্পনা কিন্তু থামছে না। বীরভূমে মুখ্যমন্ত্রীর সভা হচ্ছে অথচ সভা মঞ্চে অনুব্রত নেই, এমনটা শেষ কবে হয়েছে, তা মনে করতে পারছেন না অনেকেই।

বীরভূম তথা রাজ্য রাজনীতিতে একটি চর্চিত নাম অনুব্রত মণ্ডল। দক্ষ সংগঠক হিসেবে তাঁর সুনাম রয়েছে। বোলপুরে অমিত শা’র রোড শো’র পর পালটা সভার চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন তিনি। মঙ্গলবার জামবুনিতে তৃণমূল সুপ্রিমোর সভার প্রধান আয়োজক ছিলেন অনুব্রতই। সভায় প্রচুর মানুষের জমায়েতও হয়। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর সভামঞ্চে কেষ্টর ঠাঁই না হওয়ায় চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।