চাপরামরি ও মেদলা নজরমিনার খোলা রাখার আবেদন

164

চালসা: করোনার জন্য কার্যত লকডাউনে মুখ থুবড়ে পড়েছে পর্যটন ব্যবসা। ফলে স্বাভাবিকভাবেই চিন্তায় পড়েছে রিসর্ট মালিকেরা। আগামী ১৬ জুন থেকে প্রতি বছরের ন্যায় তিন মাসের জন্য সমস্ত জঙ্গল বন্ধ হয়ে যাবে। ফলে আর পর্যটক আসবে না। দীর্ঘদিন ধরে জঙ্গল বন্ধ থাকার জন্য সমস্যায় পড়েছে জিপসি চালক সহ রিসর্ট মালিকেরা।

মূলত গরুমারা ও চাপরামরি জঙ্গলকে কেন্দ্র করে মূর্তি, ধূপঝোরা, চালসা, বাতাবাড়ি, মঙ্গলবাড়ি, মাথাচুলকা এলাকার পর্যটন ব্যবসা চলে। টানা এই জঙ্গল বন্ধের জেরে পর্যটক না আসায় ওই সমস্ত এলাকার অর্থনৈতিক অবস্থার আরও অবনতি হবে। এই পরিস্থিতিতে বর্ষার তিন মাস চাপরামরি ও গরুমারার মেদলা নজরমিনার পর্যটকদের জন্য খোলা রাখার আবেদন জানানো হল। সোমবার রিসর্ট মালিকদের সংগঠন গরুমারা টুরিজম ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ও মূর্তি জিপসি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের তরফে গরুমারা নর্থ ও সাউথ রেঞ্জের রেঞ্জারকে ওই আবেদনের ভিত্তিতে লিখিত স্মারকলিপি দেওয়া হয়। সংগঠন সূত্রে জানা যায়, চাপরামরি ও মেদলা নজরমিনার দুটো মূল জঙ্গল থেকে অনেকেটাই বাইরে। তাছাড়া গত বছর বর্ষায় চাপরামরি নজরমিনার খোলা ছিল। এবছরও যাতে সেগুলো খোলা রাখা হয় সেই বিষয়ে এদিন দুই রেঞ্জারের মাধ্যমে ডিএফও-কে স্মারকলিপি পাঠানো হয়। এদিনের এই স্মারকলিপি প্রদানে উপস্থিত ছিলেন রিসোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক দেবকমল মিশ্র, সভাপতি তজমল হক, সহ সম্পাদক শেখ জিয়াউর রহমান, জিপসি অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক সামিন আহমেদ ফেরদৌস, পরিচালক মজিদুল আলম প্রমুখ।

- Advertisement -

গরুমারা নর্থ-এর রেঞ্জার সরোদমনি ছেত্রী বলেন, ‘দাবিপত্র পেয়েছি। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে পাঠানো হবে।‘