প্রেমিকার স্বামীকে খুনের অভিযোগ অরিজিৎ সিং-এর বিরুদ্ধে, সামনে আসছে পরকীয়ার তত্ত্ব

347

রায়গঞ্জ: পরকিয়ার জেরে ফের খুন উত্তরবঙ্গে। এবার উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জে স্ত্রীর পরকিয়ার প্রতিবাদ করায় খুন হতে হল স্বামী এবং দুই সন্তানকে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পঞ্জাবে কাজ করতে গিয়েছিলেন মৃত মঙ্গলু শেখ। সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রী মর্জিনা খাতুন, দুই পুত্র এবং এক মেয়ে। ঠিকাদারের অধীনে তিনি পঞ্জাবের ভারত পাকিস্তান সীমান্তে দীর্ঘ চার বছর যাবৎ নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করতেন। সেখানেই নির্মাণ সংস্থার ঠিকাদার অরিজিৎ সিং-এর সঙ্গে আলাপ হয় মঙ্গলু শেখের স্ত্রী মর্জিনা খাতুনের। সেই সম্পর্ক বন্ধুত্ব থেকে প্রেম এবং তারপর সহবাস পর্যন্ত পৌঁছায়। আর এই সম্পর্কের প্রতিবাদ করার জন্যই ষড়যন্ত্র করে মঙ্গলু শেখকে খুন করে অরিজিৎ এবং মর্জিনা।

পুলিশ সূত্রে খবর, পঞ্জাবের ফরিয়াবাদ সীমান্তের বিএসএফ ক্যাম্পের অস্থায়ী বাড়িতেই মঙ্গলু শেখ ও তার দুই সন্তানকে নৃশংসভাবে খুন করে তারা। খুনের অভিযোগে স্ত্রী এবং ওই ঠিকাদার যুবককে গ্রেপ্তার করছে পঞ্জাব পুলিশ। এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মৃতের ১০ বছর বয়সী একমাত্র মেয়ে আদুরি খাতুন। আপাতত সে রয়েছে বিএসএফের অধীনে। তবে শুক্রবার মৃতদেহ রায়গঞ্জের পাঠানটুলি গ্রামে  পৌঁছাতেই শোকে ভেঙ্গে পড়েন মৃতের আত্মীয়রা। এদিন অভিযুক্তদের কঠিন শাস্তির দাবিও তুলেছেন তারা।

- Advertisement -