মুম্বই শিবিরে শচীন-পুত্রকে ঘিরে জল্পনা অনুরাগীদের

560

আবু ধাবি : আইপিএলে ক্রিকেটার হিসেবে কি কামব্যাক ঘটছে তেন্ডুলকারের? মাস্টার ব্লাস্টার নন, শচীন-পুত্র অর্জুন তেন্ডুলকারকে ঘিরে এমনই জল্পনা অনুরাগীদের মধ্যে। জল্পনার সূত্রপাত স্বয়ং অর্জুনের একটি সোশ্যাল মিডিয়ায় করা পোস্ট। ছবিতে দেখা যাচ্ছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিদেশি তারকা ট্রেন্ট বোল্ট, জেমস প্যাটিনসনদের সঙ্গে টিম হোটেলের সুইমিং পুলে অর্জুনও। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা যে ছবির ক্যাপশনে অর্জুন লিখেছেন, রেস্ট ডে ইজ দ্য বেস্ট ডে।

অর্জুনের পোস্ট ভাইরাল হতে দেরি হয়নি। গুঞ্জনও শুরু হয়ে যায়, তাহলে কি এবার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলতে দেখা যাবে অর্জুনকেও? আইপিএলের শুরুতে আইকন হিসেবে টিম মুম্বইয়ে দীর্ঘদিন খেলেছেন শচীন। পরবর্তীকালে মেন্টর হয়েছেন। সেই পদাঙ্ক অনুসরণ করে অর্জুনের গায়ে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের জার্সি উঠতে চলেছে? অবশ্য সেরকম কিছু ঘটেনি এখনও। দলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে গিয়েছেন নেট বোলার হিসেবে। বায়ো বাবল পরিবেশে স্থানীয় বোলারের বদলে দলগুলি নিজেদের সঙ্গে করেই নেট বোলার নিয়ে গিয়েছে। মুম্বই দলের নেট বোলারের তালিকায় রয়েছেন অর্জুন। রোহিত শর্মাদের নেট প্র‌্যাকটিসে সাহায্য করবেন।

- Advertisement -

অতীতে বিভিন্ন দলের নেটে বল করেছেন বাঁ-হাতি পেসার বছর উনিশের অর্জুন। লর্ডসে ইংল্যান্ডের প্র‌্যাকটিসেও তাঁকে বল করতে দেখা গিয়েছে। অর্জুনের ইয়র্কারে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল জনি বেয়ারস্টোকে। বাঁ-হাতি বোলিংয়ে তারকাদের প্রশংসাও কুড়িয়েছেন। নিজেকে আরও ধারালো করে তুলতে সেই প্রক্রিয়াই জারি। বোল্ট, প্যাটিনসনদের মতো বিশ্ব ক্রিকেটের তারকাদের সঙ্গে প্র‌্যাকটিসের সুযোগ, রোহিত শর্মাদের বোলিং করার পাশাপাশি তারকাদের ভিড়ে জমিয়ে সময় কাটানোর অ্যাডভান্টেজ শচীন-পুত্রের। একইসঙ্গে হঠাৎ কেউ চোট বা অন্য কারণে খেলতে না পারলে, জরুরি পরিস্থিতিতে তার শূন্যস্থান পূরণের একটা ক্ষীণ সম্ভাবনাও থাকছে।

আইপিএল সতীর্থ জসপ্রীত বুমরাহকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন অজি স্পিডস্টার প্যাটিনসন। লসিথ মালিঙ্গার পরিবর্তে দলে আসা প্যাটিনসন এদিন বলেন, বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলারদের সঙ্গে খেলার সুযোগ পাচ্ছি। বুমরাহ সম্ভবত এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা টি২০ বোলার। বোল্টি (ট্রেন্ট বোল্ট)-ও সমান দক্ষ। মুম্বই ইন্ডিয়ান্স জার্সিতে ওদের মতো বোলারকে পাশে পাওয়াটা বাড়তি প্রাপ্তি। মন্থর পিচ। আবহাওয়া ছ্যাঁকা লাগানো গরম। পেসারদের জন্য চ্যালেঞ্জ। মুম্বই শিবিরে যোগ দেওয়ার আগে যা নিয়ে ছোটখাটো রিসার্চ চালানো প্যাটিনসন বলেন, আমি কয়েকটা ওডিআই ম্যাচ খেলেছি এখানে। আমিরশাহি নিয়ে কমবেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে। এখানকার উইকেট অন্যরকম। একটু বেশি শুকনো। গোটা টুর্নামেন্টে মাত্র তিনটি উইকেট ব্যবহৃত হবে। ফলে টুর্নামেন্ট যত এগোবে পিচ মন্থর হবে।