মদের আসরে বন্ধুকে পিটিয়ে মারার অভিযোগে গ্রেপ্তার যুবক

288

বর্ধমান: কথায় আছে মদের নেশা সর্বনাশা। কিন্তু এটা যে নিছক কথার কথা নয় তা বাস্তবে প্রামাণ করেদিল বর্ধমানের রায়ান ১ পঞ্চায়েতের হাটুদেওয়ানের ঘটনা। মদের আসরে মাত্র ৩০ টাকা নিয়ে গণ্ডগোলের জেরে বন্ধুকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠল অপর বন্ধুর বিরুদ্ধে। মৃতর নাম শেখ বাদশা(৩৫)। হাটুদেওয়ান এলাকাতেই তার বাড়ি। মৃতর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে বর্ধমান থানার পুলিশ হাটুদেওয়ান এলাকা নিবাসী ইসরাফিল শেখকে গ্রেপ্তার করেছে। এই ঘটনার জেরে হাটুদেওয়ান এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূল শাস্তির দাবি করেছে মৃতর পরিবার।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগিয়েছে, হাটুদেওয়ান এলাকার শেখ বাদশা ও ইসরাফিল শেখ ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তারা নিত্যদিনই মদ্য পান করেন। শনিবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। ওই দিন দুপুরে দুই বন্ধু বিজয়রাম এলাকায় একসঙ্গে মদ খেতে বসে। সেই মদের আসরে মদ খাওয়ার চাট কেনার মাত্র ৩০ টাকা নিয়ে দু’জনের মধ্যে বচসা বাধে। পরে দু’জনের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। নেশার ঘোরে দুই বন্ধুর মারপিট চরমে ওঠে।

- Advertisement -

অভিযোগ ওই সময়ে আচমকাই ইসরাফিল বাঁশ দিয়ে বাদশাকে আঘাত করে। তাতে জখম হয়ে বাদশা মিটিতে লুটিয়ে পড়ে। খবর পেয়ে তাঁর পরিবারের লোকজন বিকেলে সেখানে পৌঁছান। তারা বাদশাকে উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন। সন্ধ্যা নাগাদ সেখানেই বাদশার মৃত্যু হয়। মৃতর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে বর্ধমান থানার পুলিশ রাতে বাদশার বন্ধু ইসরাফিলকে গ্রেপ্তার করে। সুনির্দিষ্ট ধারার মামলা রুজু করে পুলিশ রবিবার ধৃতকে পেশ করে বর্ধমান আদালতে। ঘটনার তদন্তের প্রয়োজনে তদন্তকারী অফিসার ধৃতকে চারদিন নিজেদের হেপাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানান। বিচারক সেই আবেদন মঞ্জুর করেছেন।