সরকারের নির্দেশ অনুসারে পুলিশি অভিযান রায়গঞ্জজুড়ে

108

রায়গঞ্জ: রাজ্য সরকারের নির্দেশ মোতাবেক রাজ্যের সর্বত্র ব্যবসায়ীরা দোকান খোলা রাখতে পারবে সকাল ৭টা থেকে ১০টা এবং বিকেল ৫টা থেকে ৭টা পর্যন্ত। নির্ধারিত সময়ের পর যাতে কোনও দোকান খোলা না থাকে সেই কারণে শহরের বিভিন্ন অংশে পুলিশের তরফে অভিযান চালানো হচ্ছে দিনরাত। অনেক ক্ষেত্রে গ্রেপ্তারির ঘটনাও ঘটেছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

রাজ্যে শপিং মল, সিনেমা হল, নাইট ক্লাব ইত্যাদি বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে সরকারের তরফে। অন্যদিকে, মুদির দোকান, ওষুধ, মিষ্টি, মাংস, বিদ্যুৎ ও মোবাইল সম্পর্কিত ইত্যাদি দোকান খোলা থাকার কথা বলা হয়েছে। যদিও ব্যবসায়ীদের তরফে জানানো হয়েছে যে, করোনা সংক্রমণ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে তাই পুলিশেরও কোনও উপায় ছিল না।’

- Advertisement -

রায়গঞ্জের পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘সরকারি নির্দেশ অনুসারেই দোকান বন্ধ করতে হচ্ছে। অনেক ব্যবসায়ী আছেন যারা পুলিশের সাথে লুকোচুরি খেলছেন। পুলিশ দেখে দোকান বন্ধ করে দিয়ে আবার পুলিশ চলে যাওয়ার পর হয়তো আবার দোকান খুলে দিচ্ছেন। প্রতিদিন প্রায় চার থেকে পাঁচজন গ্রেপ্তার হচ্ছেন। এখনও পর্যন্ত ৫০ জনের বেশি গ্রেপ্তার হয়েছেন। সরকারি নির্দেশ সবার জন্য প্রয়োগ করা হচ্ছে।

পশ্চিম দিনাজপুর চেম্বার অফ কমার্সের সাধারণ সম্পাদক শংকর কুন্ডুর জানান, পুলিশ প্রশাসন জানেনই না যে কোন দোকান খোলার আওতায় আর কোন দোকান বন্ধের আওতায়। যেগুলো দোকান খোলা থাকার কথা সেগুলিও পুলিশ বন্ধ করে দিচ্ছে। দু’বেলা দোকান খোলা রাখার জন্য পুলিশ প্রশাসন এবং ব্যবসায়ী উভয়েরই হয়রানি বেড়েছে।