সাধারণ ধর্মঘটে স্বাভাবিক আসানসোল শিল্পাঞ্চল

237

আসানসোল: বিভিন্ন কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনের ডাকা দেশব্যাপী সাধারণ ধর্মঘট সফল করতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলে সিপিএম সহ তাদের শাখা সংগঠন ডিওয়াইএফআই ও বাম শ্রমিক সংগঠনগুলো মিছিল করে। পালটা ধর্মঘটের বিরুদ্ধে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসির কর্মী ও সমর্থকরা আসানসোল শহরে মিছিল করেন। এদিকে শ্রমিক সংগঠনের ডাকা বনধে দীর্ঘক্ষণ অবরুদ্ধ ছিল পূর্ব মেদিনীপুরের ৬ নম্বর এবং ৪১ নম্বর জাতীয় সড়ক। তবে সচল রয়েছে হলদিয়া শিল্পাঞ্চল।

এদিনের ধর্মঘটে আসানসোল শহর তথা শিল্পাঞ্চলের জনজীবন মোটের উপর স্বাভাবিক ছিল। মিনিবাস, বড় বাস চললেও বিভিন্ন রুটে সংখ্যা ছিলো কম। পরিবহন ব্যবস্থা স্বাভাবিক না থাকায় রাস্তায় বেরিয়ে সাধারণ মানুষ সমস্যায় পড়েন। রাস্তায় অটো ও টোটো অন্যদিনের মতো স্বাভাবিক ছিল। সকালের দিকে ধর্মঘট সমর্থকরা পুলিশের সঙ্গে তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। এদিন ধর্মঘটের বিরোধিতায় তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের নেতা রাজু আলুওয়ালিয়া মিছিল করেন। তারা আসানসোলের জিটি রোডে এলআইসির কাছে একটি ব্যাংক খোলার জন্য যান। সিএমপিডিআই অফিসেও তারা যান।

- Advertisement -

সিপিএমের পক্ষ থেকে আসানসোল শহরে জিটি রোডের বিএনআর থেকে মিছিল করা হয়। ছিলেন জেলা নেতা পার্থ মুখোপাধ্যায়। ডিওয়াইএফআইয়ের তরফে আসানসোলে বাইক মিছিল করা হয়। বিভিন্ন রাস্তায় গন্ডগোল সামলাতে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাফ ও কমব্যাট ফোর্স নামানো হয়। ধর্মঘটের সকালের শিফটে ইসিএলের কোলিয়ারিতে কয়লা উৎপাদন স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বার্ণপুর ইস্কো কারখানা ও চিত্তরঞ্জন রেল ইঞ্জিন কারখানাতেও এদিন হাজিরা ছিল স্বাভাবিক।