নির্মীয়মাণ ওভারব্রিজের কাজ পরিদর্শনে আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়

173

আসানসোল, রাজা বন্দোপাধ্যায়: নির্মীয়মাণ ওভারব্রীজের কাজ পরিদর্শনে গেলেন আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। করোনার জন্য আসানসোলের কুমারপুরে জিটি রোডে রেল ও সেলের যৌথ উদ্যোগে তৈরি হওয়া ওভারব্রিজের কাজ গত কয়েক মাস ধরে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। নতুন করে সেই কাজ আবার শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে আসানসোলের ডিআরএম সুমিত সরকারকে সঙ্গে নিয়ে সেখানে যান তিনি। ওভারব্রিজের কাজ খতিয়ে দেখেন৷

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বাবুল সুপ্রিয়ো বলেন, ‘এই ব্রিজে ১২২টি স্তম্ভ বা খুঁটি তৈরি করা হবে। যার মধ্যে ৪৬টির কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে। এছাড়াও এই ব্রিজের জন্য যে লিঙ্ক রাস্তাগুলি তৈরি করা দরকার সেগুলিরও কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে। মাত্র ২০০ মিটার রাস্তা বাকি আছে। রেলের তরফে ৩ কোটি ও সেলের তরফে ৩০ কোটি অর্থাৎ মোট ৬০ কোটি টাকা এই কাজের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে।’

- Advertisement -

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘সাধারণত জাতীয় সড়কে ১১ মিটার চওড়া ব্রিজ হয়। এখানে ৯ মিটার চওড়া করা হবে। প্রথমে ৪০ কোটি টাকার অনুমোদন করিয়ে ছিলাম। কিন্তু রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস আমাকে বলেছিলেন যদি ১১ মিটার চওড়া না করা হয় তাহলে পিডব্লিউডি বা পূর্ত দপ্তর অনুমোদন দেবে না। সেই কারণে শেষ পর্যন্ত বিশেষ অনুমতি নিয়েই ১১ মিটার চওড়া করার সিদ্ধান্ত নিয়ে এই ব্রিজে কাজ শুরু হয়। এই ব্রিজ তৈরি হলে আসানসোল থেকে কুলটি, বরাকর, চিত্তরঞ্জন, পুরুলিয়া এমনকি ঝাড়খন্ড যাওয়ার জন্য আর এই রেলগেটে এসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাস, গাড়ি সহ কাউকে অপেক্ষা করতে হবে না। এই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি এই ব্রিজ তৈরি হলে মিটে যাবে। যারা রাস্তার পাশে ছিলেন তাঁদের পুনর্বাসনের কথাও ভাবা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ভোটের দিকে তাকিয়ে দ্রুত এই ব্রিজ তৈরি করে আমি উদ্বোধন করার পক্ষপাতি নই। দ্রুত কাজ শেষ করতে গিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ব্রিজে ফাটল ধরেছে ও ভেঙে যাচ্ছে। যা এই রাজ্যে হয়। তেমন ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য মজবুত করে সেতুটি তৈরি করা হচ্ছে। করোনার সময় কাজ বন্ধ থাকলেও আবার নতুন করে কাজ শুরু হওয়ায় আমি সকল কর্মী ও আধিকারিকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এখানে কিছু গাছ পড়ে থাকায় ব্রিজের কাজ সম্পূর্ণ করতে কিছুটা বাঁধা তৈরি হচ্ছে। এই নিয়ে অবশ্যই আমি আমার দপ্তরের মাধ্যমে বিষয়টি আলোচনা করব।’

এর আগে এদিন বাবুল সুপ্রিয় রানিগঞ্জে ২নং জাতীয় সড়কের সার্ভিস রোড মেরামতির কাজ ঘুরে দেখেন। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যেখানে যেখানে সার্ভিস রোডের খারাপ অবস্থা হয়েছে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষকে সেগুলি দ্রুত মেরামতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’