বাংলা ছাড়া নিশ্চিত, ছত্তিশগড়, গোয়া নিয়ে দোলাচলে অশোক দিন্দা

258

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : আশঙ্কাটাই শেষপর্যন্ত সত্যি হতে চলেছে। বড় কোনও অঘটন না ঘটলে বাংলার হয়ে আর খেলতে দেখা যাবে না অশোক দিন্দাকে। তিনি বাংলা ছাড়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছেন। গোয়া, ছত্তিশগড়, পুদুচেরির মতো দেশের কয়েকটি রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার সঙ্গেও তাঁর কথা চলছে। অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে আলোচনা। সূত্রের খবর, দিন দুয়েকের মধ্যেই মধ্যেই সিএবি-র কাছে এনওসি-র জন্য সরকারিভাবে আবেদন করতে চলেছেন বাংলার সর্বকালের অন্যতম সেরা পেসার দিন্দা। রাতের দিকের খবর, তাঁর ছত্তিশগড়ের সঙ্গে গোয়া যাওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। দিন্দা চাইছেন এমন কোনও রাজ্যের হয়ে খেলতে যেখানে সুযোগের পাশাপাশি প্রয়োজনে ছুটি কাটানোর সুযোগও পাওয়া যাবে।

শেষ মরশুমে কেরলের বিরুদ্ধে রনজি ট্রফি অভিয়ান শুরু করেছিল বাংলা। সরাসরি কেরলকে তাদের মাঠে হারিয়ে কলকাতা ফিরে ঘরের মাঠে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামার মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে বাংলার সাজঘরে দলের বোলিং কোচ রণদেব বসুর সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ে জড়িয়ে পড়েন দিন্দা। যার ফলে তাঁকে দল থেকে বাদও পড়তে হয়েছিল। দিন্দা বাদ পড়ার পর বাকি মরশুমে দল নির্বাচনের সময় তাঁর নাম বারবার আলোচনায় এলেও কখনোই সুযোগ আসেনি তাঁর জন্য। বাংলার রনজি ফাইনাল খেলার পাশাপাশি মুকেশ কুমার-আকাশ দীপ-ঈশান পোড়েলদের সরিয়ে দিন্দার সুযোগ পাওয়া আরও কঠিন হয়ে গিয়েছিল। তাই আগেই বাংলা ছাড়ার সিদ্ধান্তটা পরিবারের সঙ্গে কথা বলে চূড়ান্ত করেছিলেন তিনি। রবিবার বিকেলে দিন্দা উত্তরবঙ্গ সংবাদ-কে বলছিলেন, বাংলা ক্রিকেটের সঙ্গে আমি দীর্ঘদিন জড়িয়ে রয়েছে বহু স্মৃতি। বাংলার ক্রিকেট আবেগের প্রতি আমার শ্রদ্ধা কখনও কমবে না। কিন্তু আর বাংলার হয়ে খেলব না আমি। সিদ্ধান্তটা নিয়ে ফেলেছি। খুব দ্রুত সিএবি-র কাছে এনওসি-র আবেদন করছি। চাইনি, এভাবে বাংলা ছেড়ে যেতে। কিন্তু এবার যেতে হবে আমায়। আর রণদেব বাংলা দল ছেড়ে দিলে ফিরে আসার কথা ভাবতে পারি। ঠিক কবে এনওসি-র জন্য আবেদন করবেন দিন্দা? বাংলা ছেড়ে কোন রাজ্যেই বা যাবেন তিনি? দিন্দা কিছু জানাতে না চাইলেও বঙ্গ ক্রিকেটের অন্দরের খবর, তিন রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা হলেও শেষপর্যন্ত ছত্তিশগড় বা গোয়ার মধ্যে যে কোনো একটিকে বেছে নেবেন তিনি। দিন্দা এনওসির আবেদন করলে সিএবি কি তা মঞ্জুর করবে? সূত্রের খবর, দিন্দাকে এনওসি দেবে সিএবি। সভাপতি অভিষেক ডালমিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

- Advertisement -