তুফানগঞ্জ, ৯ ডিসেম্বরঃ রাজবংশী জনজাতিকে তপশিলি উপজাতি হিসেবে চিহ্নিত করা ও  কামতাপুর রাজ্য গঠনের দাবিতে অসম বনধের ডাক দিল অল কোচ রাজবংশী স্টুডেন্ট’স অ্যাসোসিয়েশন (আক্রাসু)। সোমবার ভোর পাঁচটা থেকে বনধ শুরু হয় অসমের বিভিন্ন জেলায়। আক্রাসুর ডাকা বনধের জেরে ব্যাহত হয় জনজীবন। ৩১ জাতীয় সড়কে উত্তর-পূর্ব ভারতে যোগাযোগকারী লরির লম্বা লাইন চোখে পড়তে দেখা যায় অসম-বাংলা সীমান্তের বক্সিরহাট ও ছাগোলিয়ায়। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রাখতে আধা সামরিক বাহিনীর জওয়ানদের মোতায়েন ছিল ছাগোলিয়ায়। এলাকার দোকানপাট ছিল বনধের আওতায়। এদিনের বনধ সমর্থনের দাবি জানিয়ে পথে নামেন অল কোচ রাজবংশী স্টুডেন্ট’স ইউনিয়নের কর্মী-সমর্থকরা। সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোকুল বর্মন বলেন, ‘দাবি দুটি আদায়ের জন্য অসম জুড়ে বনধ ডাকা হয়েছে।’