বিদ্যালয় স্তরে কলা উৎসব এবার অনলাইন, প্রস্তুতি তুঙ্গে

713

দীপঙ্কর মিত্র, রায়গঞ্জ: প্রতি বছর বিদ্যালয় স্তরের নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা কলা উৎসবে অংশ নেয়। এই উৎসব জেলা, রাজ্য ও জাতীয় স্তরে অনুষ্ঠিত হয়। তবে এবছর করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে আট মাসের বেশি সময় বন্ধ প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ডিসেম্বর মাসেও খুলবে কিনা কেউ জানে না। তাই এবছর কলা উৎসব অনলাইনে সম্পন্ন করতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে জেলা সমগ্র শিক্ষা মিশন।পড়ুয়ারা কিভাবে অনলাইনে শিল্প, ভাস্কর্য, সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে তার চূড়ান্ত পর্যায়ের প্রস্তুতি চলছে জেলা দপ্তরে। জেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ের নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পড়িয়ারা এই উৎসব অংশ নিতে পারবে।

সমগ্র শিক্ষা অভিযানের জেলা কো-অর্ডিনেটর সোমনাথ চক্রবর্তী জানান, প্রতিবছর কলা উৎসবে জেলার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রতিভাবান পড়ুয়ারা বিভিন্ন ইভেন্টে অংশ নেয়। এবছর মোট ১৮ টি ইভেন্টে প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হবে। ক্ল্যাসিক্যাল কন্ঠ সংগীত, লোকসংগীত, ক্ল্যাসিক্যাল যন্ত্রসংগীত, যন্ত্রসংগীতে লোকগান, ধ্রুপদী নৃত্য, রাজ্যের পরম্পরাগত নৃত্য, চিত্রাঙ্কন, ভাস্কর্য, ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা সহ অন্যান্য বিষয় থাকছে।

- Advertisement -

তিনি বলেন, ‘বিগত কয়েক বছর ধরে উত্তর দিনাজপুর জেলার পড়ুয়ারা রাজ্য ও জাতীয় স্তরে সাফ ল্যের ধারা বজায় রেখেছে। ২০১৯ সালে উত্তর দিনাজপুর জেলা রাজ্যস্তরে ছেলেদের মধ্যে নৃত্য কলায় প্রথম, মেয়েদের সঙ্গীত কলায় দ্বিতীয় এবং ছেলেদের চিত্রাঙ্কনে দ্বিতীয় স্থান ছিনিয়ে নিয়েছিল।‘

সোমনাথ বাবু আরও জানালেন, ‘এবছর পরিস্থিতি অন্যরকম হওয়া সত্ত্বেও কলা উৎসব পালনের জন্য আমরা পিছিয়ে নেই। জেলার প্রতিভাবান শিল্পীকে জাতীয় স্তরে মঞ্চ করে দিতে সমগ্র শিক্ষা অভিযান দায়িত্ব পালন করে চলেছে। অনলাইনে যাতে অনুষ্ঠানটি করা যায় তারও চেষ্টা চলছে এবং সেইভাবে আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি।কিন্ত এখনও নির্দেশিকা আসেনি।‘

বিদ্যালয় স্তরে কলা উৎসব এবার অনলাইন, প্রস্তুতি তুঙ্গে| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
২০১৯ সালের কলা উৎসবের কিছু খণ্ডচিত্র

প্রসঙ্গত, গত ২০১৫ সাল থেকে জেলা ও রাজ্য স্তরে কলা উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ২০১৭ ও ২০১৮ সালে রায়গঞ্জ করোনেশন হাই স্কুল জাতীয় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। ২০১৯ সালে জাতীয় স্তরে নৃত্য কলায় প্রথম স্থান অধিকার করে ইটাহার হাই স্কুল।
২০১৫ সালে সুদর্শনপুর দ্বারিকা প্রসাদ উচ্চ বিদ্যাচক্র রাজ্যস্তরে সঙ্গীত কলায় দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে। সেইসঙ্গে দেবীনগর কৈলাসচন্দ্র রাধারানী উচ্চ বিদ্যাপীঠ, হেমতাবাদ আদর্শ বিদ্যালয়, মালঞ্চ হাই স্কুল, করণদীঘি হাই স্কুল, চোপড়া হাই স্কুল এবং ইটাহার হাই স্কুল কলা উৎসবে ধারাবাহিকভাবে সাফল্য বজায় রেখেছে।

ইটাহার হাই স্কুলের সহ-শিক্ষক ডঃ অভিজিৎ চৌধুরী বলেন, ‘জেলা থেকে প্রতিযোগিতার বিষয়গুলি নিয়ে একটা প্রারম্ভিক বার্তা পেয়েছি। স্কুল বন্ধ থাকায় সমস্যা হচ্ছে।তবে কয়েকটি ইভেন্টে তালিম শুরু হয়ে গিয়েছে।‘ কোভিড পরিস্থিতির জন্য এবারে অনলাইনে প্রতিযোগিতা হলেও তেমন কোনো সমস্যা হবে না বলে জানান তিনি।

বানবোল হাই স্কুলের সহকারি প্রধানশিক্ষক চন্দ্র নারায়ন সাহা জানান, বিদ্যালয় স্তরের ছাত্র-ছাত্রীরা কলা উৎসবের মাধ্যমে জেলা স্তর থেকে জাতীয় স্তরে নিজেদের প্রতিভা তুলে ধরতে পারে। কিন্তু এবছর কোভিড পরিস্থিতি সব কিছু যেন পালটে দিয়েছে। যদি অনলাইনে অনুষ্ঠান হলে কোনো সমস্যা নেই।

দেবিনগর কৈলাস চন্দ্র রাধারাণী বিদ্যাপীঠের শিক্ষিকা সৌমি বিশ্বাস জানান, প্রতি বছর আমাদের বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা অংশ নেয়। বেশ কয়েকবার সাফল্য পেয়েছে। এবছর যদি অনলাইনে হয় সমস্যা নেই।