আজ মুম্বইয়ে দিকে তাকিয়ে মেরিনার্সরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : আপাতত মুম্বই সিটি এফসির বুধবারের ম্যাচের দিকে তাকিয়ে গোটা সবুজ-মেরুন শিবির।

ওড়িশার বিরুদ্ধে সের্জিও লোবেরার দল জিতে গেলে শেষ ম্যাচেই ঠিক হবে, আগামী এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্য কাদের কপালে শিকে ছিঁড়বে। আর যদি বুধবার পয়েন্ট নষ্ট করেন অ্যাডাম লি ফন্ড্রেরা তাহলে সেই মুহূর্তেই লিগ শীর্ষে থেকে ঐতিহাসিক সম্মান আদায় করে নেবেন মেরিনার্সরা।

- Advertisement -

তবে এসবের আগে সোমবার হায়দরাবাদ ম্যাচে যেভাবে খেলেছে তাঁর দল, তাতে একেবারেই খুশি নন আন্তোনিও লোপেজ হাবাস। তিনি রীতিমত বিরক্তি নিয়ে বলেন, আমি দলের খেলায় একেবারেই খুশি নই। এই ম্যাচেই আমাদের ৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগের এক নম্বর জায়গা নিশ্চিত করা উচিত ছিল। মাত্র ৪ মিনিটে ওরা ১০ জন হয়ে যাওয়ায় আমরা সুবিধা পেয়েছিলাম বেশি লোকের। যা কাজে লাগানো যায়নি। এখন আমাদের মুম্বই সিটি এফসির বিরুদ্ধে ম্যাচটা নিয়ে ভাবনা শুরু করে দিতে হচ্ছে। ওই ম্যাচ প্রসঙ্গে তাঁর ভাবনাচিন্তা আরও বিস্তারিত বলতে গিয়ে হাবাসের মন্তব্য, মুম্বই সিটিকে অবশ্য আমাদের আগে ওড়িশার বিরুদ্ধে খেলতে হবে। তবে এই ম্যাচের কথা না ভেবে আমাদের নিজেদের জয়ে জন্য তৈরি হতে হবে। চোট পাওয়া ফুটবলারদেরও এর মধ্যে ফিট হতে হবে। সারা মরশুমে আমরা খুব ভালো খেলেছি। এবার লিগশিল্ডটা জেতা জরুরি।

সবুজ-মেরুন শিবিরের জন্য সুখবর, প্রায় ফিট হয়ে গিয়েছেন এডু গার্সিয়া। ২৮ তারিখের মুম্বই ম্যাচ থেকেই তিনি মাঠে নেমে পড়তে পারবেন বলে শিবিরের খবর। হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে রয় কৃষ্ণা আটকে গেলেও মানবীর দলের প্রথম গোল করেন। যদিও জিততে না পেরে হতাশ তিনি। নিজেই জানান, আমরা সকলেই খুব হতাশ হয়েছি ম্যাচটা জিততে না পেরে। প্রথম গোলটা সম্পূর্ণ আমাদের দোষে। যেব ভুল হয়েছে, সেগুলো শোধরাতে হবে। আশা করছি পরের ম্যাচে সব ভুল শুধরে জয়ে ফিরতে পারব। নিজের খেলায় খুশি মানবীর। নিজেকে নিয়ে তাঁর মন্তব্য, প্রতি ম্যাচে ১০০ শতাংশ দিতে চাই। এখনও পর্যন্ত নিজের খেলায় খুশি। মোহনবাগানে যোগদানে সিদ্ধান্ত যে সঠিক ছিল, সেটা নিজেই বুঝতে পারছি। আসলে হাবাস স্যারের স্টাইলের সঙ্গে খুব ভালো মানিয়ে নিতে পেরেছি। পাঁচ গোল করে আপাতত ভারতীয় ফুটবলারদের মধ্যে গোলদাতার তালিকায় সুনীল ছেত্রীর (৭) পরেই রয়েছেন তিনি।