ভারতী ঘোষের রোড শো’তে হামলা, আশঙ্কাজনক এক

91

রামপুরহাট: রোড শো চলাকালীন ভারতী ঘোষের গাড়ি আটকে গো ব্যাক শ্লোগান উঠল বীরভূমের হাঁসন বিধানসভা কেন্দ্রের মাড়গ্রামে। অভিযোগ, পুলিশের সামনেই বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের। যদিও পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার প্রতিবাদে মাড়গ্রামের ধুলফেলা মোড়ে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন ভারতী ঘোষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছান রামপুরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সায়ন আহমেদ। তিনি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিতেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন মাড়গ্রামে হাঁসন কেন্দ্রের প্রার্থী নিখিল বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে রোড শো করেন দলের রাজ্য সহ-সভানেত্রী ভারতী ঘোষ। রোড শো শেষ করার কথা ছিল ধুলফেলা মোড়ে। অভিযোগ, রোড শো সেখানে পৌঁছতেই স্থানীয় তৃণমূল কার্যালয় থেকে কিছু লোকজন বেরিয়ে ভারতী ঘোষের পথ আটকায়। প্রথমে কালো পতাকা দেখানো হয়। পরে গো ব্যাক শ্লোগান দেওয়া হয়। এরপরেই বাঁশ, লাঠি, লোহার রড দিয়ে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের উপর আক্রমণ চালানো হয় বলে অভিযোগ ওঠে। ঘটনায় এক বিজেপি কর্মী গুরুতর জখম হন। এরপরেই গাড়ি থেকে নেমে রাস্তায় বসে পড়েন ভারতী ঘোষ সহ প্রার্থী নিখিল বন্দ্যোপাধ্যায়।

- Advertisement -

ভারতী ঘোষ অভিযোগ করে বলেন, ‘মাড়গ্রাম থানার ওসি প্রদীপ ঘোষের মদতে আমাদের উপর আক্রমণ হয়েছে। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে না পেরে ওসি আমাদের দোষারোপ করছে। আমাদের ট্যাবলো গাড়ির চালককে হুমকি দিচ্ছে। আমার বিশ্বাস ওসি তৃণমূলের লোকজন জমায়েত করেছে। বিষয়টি আমি পুলিশ সুপারকে জানিয়েছি। কমিশনেও লিখিত অভিযোগ দায়ের করব। সকলকে গ্রেপ্তার করতে হবে। এভাবে গণতন্ত্রের কণ্ঠরোধ করা যাবে না।’

যদিও বিজেপির তরফে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল নেতৃত্বরা।