কন্যা সন্তান প্রসব করায় স্ত্রীকে মারধর করে খুনের চেষ্টার অভিযোগ

628

রায়গঞ্জ, ৮ জুনঃ কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ায় স্ত্রীকে বেধড়ক মারধর করে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল স্বামী বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ইটাহার থানার দুর্লভপুর এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। গৃহবধূর চিৎকারতে প্রতিবেশীরা ছুঁটে আসেন। খবর পেয়ে ইটাহার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। জখম গৃহবধূকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। জখম স্ত্রী মারুফা খাতুন বর্তমানে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ওই গৃহবধূর বাপের বাড়ি হেমতাবাদ থানার বাঙালবাড়ি গ্রামে। এদিন রাত ১২টা নাগাদ পরিবারের লোকেরা খবর পেয়ে হাসপাতালে আসেন। জখম গৃহবধূর দাদা আজিমুল আলীর অভিযোগ, কন্যা সন্তান হওয়ার পর থেকেই তাঁর বোনের ওপর শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন করা হত। স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজন এই অত্যাচার চালাত। সম্প্রতি প্রায় ২ লক্ষ টাকা বাপের বাড়ি থেকে আনার জন্য অভিযুক্ত স্বামী গৃহবধূর ওপর চাপ দেন। কিন্তু, সেই টাকা না পেয়ে ওই অত্যাচার চলছিল। স্বামী ওই গৃহবধূকে বেধড়ক মারধরের পাশাপাশি, বিষ মেশানো জল খাইয়ে খুন করার চেষ্টা করেছে। অভিযুক্ত স্বামীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ইটাহার থানায় মৌখিক অভিযোগ করা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত স্বামীর নাম রাহানুল হক পেশায় মোবাইল মেকার ও পরিবহন ব্যবসায়ী। জখমের দাদার জানিয়েছেন, মঙ্গলবার বোনের শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করবেন। ইটাহার থানার ওসি অভিজিৎ দত্ত জানান, অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।