প্রকাশ্যে প্রাক্তন প্রধানকে ছুরি মেরে খুনের চেষ্টা, চাঞ্চল্য

439

সামসী: দিনের বেলা প্রকাশ্যে প্রাক্তন প্রধানকে ছুরি মেরে খুনের চেষ্টায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল চাঁচলে। বুধবার সকালে চাঁচল ২ ব্লকের চন্দ্রপাড়া জিপির কানাইপুর বাজার এলাকার ঘটনা। যদিও প্রাণে বেঁচে যান প্রাক্তন প্রধান। খবর পেয়ে চন্দ্রপাড়ার ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। ততক্ষনে অভিযুক্ত সেখান থেকে চম্পট দেন। শাসকদলের প্রাক্তন ওই প্রধানের নাম নব কুমার সিংহ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কানাইপুর বাজারে তথ্যমিত্র কেন্দ্রে মোবাইল রিচার্জ করতে এসেছিলেন প্রাক্তন প্রধান নব কুমার। সে সময় প্রধানের গলায় ছুরি চেপে ধরেন দুষ্কৃতী জসিমুদ্দিন। বাঁচার চেষ্টা করেন নব কুমার। দুজনের মধ্যে ধ্বস্তাধ্বস্তি চলে অনেকক্ষন। ঘটনা দেখে ছুটে আসেন স্থানীয় বাসিন্দা মহম্মদ আলি জিন্নাহ নামক এক যুবক। অভিযুক্ত জসিমুদ্দিন প্রধানের পেট লক্ষ করে ছুরি চালাতেই একেবারে ফিল্মি কায়দায় তার কব্জিতে আঘাত করেন মহম্মদ আলি জিন্নাহ। জসিমুদ্দিনের হাত থেকে ছুরি পড়ে যায়। ফলে বেঁচে যান নব কুমার। বিষয়টি চাউর হতেই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।

- Advertisement -

স্থানীয়দের দাবি, এলাকায় চড়া সুদের কারবারের সঙ্গে জড়িত জসিমুদ্দিন। নব কুমার বলেন, আমার পাড়ার এক যুবক জসিমুদ্দিনের থেকে ৬৫ হাজার টাকা নিয়েছিল। পরে সুদ সহ ১ লক্ষ ৮৪ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছে। কিন্তু জসিমুদ্দিন আরও বেশি টাকা দাবি করেন। তারপরেও দুপক্ষকে নিয়ে বসার কথা ছিল। তারপরেই এদিন ও হামলা করে। স্থানীয় যুবক মহম্মদ আলি জিন্না বলেন, প্রথমে ভেবে ছিলাম ওরা দুজন মজা করছেন। পরে যখন প্রধানের পেটে ছুরি মারতে যায় তখনই জসিমুদ্দিনের হাতে আঘাত করি। ছুরি মাটিতে পড়ে যায়। বেঁচে যান প্রধান।

স্থানীয় এক ব্যক্তিকে সুদে টাকা দেয় জসিমুদ্দিন। কিন্তু ওই ব্যক্তি টাকা শোধ করেননি বলে অভিযোগ। টাকা ধার নেওয়া ব্যক্তি নব কুমারের সংসদের হওয়ায় তিনি সমস্যা মেটানোর দায়িত্ব নিয়েছিলেন। কিন্তু তারপরেও টাকা না মেটায় এদিন প্রাক্তন প্রধানের উপরে সে হামলা চালায় বলে অভিযোগ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, পুরোনো একটি ঘটনাকে ঘিরে বচসার সময় ওই অভিযুক্ত প্রাক্তন প্রধান নব কুমার সিংহকে ছুরি মারার চেষ্টা করে। নব কুমার সিংহ চন্দ্রপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান ছিলেন। এদিকে অভিযুক্ত জমিসুদ্দিন আহমেদ এলাকায় নানা অসামাজিক কাজকর্মের সঙ্গে জড়িত। এর আগে পাইপগান সহ তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছিল।

চাঁচলের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সজলকান্তি বিশ্বাস জানিয়েছেন, পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছেন। অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চলছে। তবে অভিযুক্ত পলাতক।