রোগীকে ধর্ষণের চেষ্টা,গ্রেপ্তার হাসপাতালের অস্থায়ীকর্মী

381

জঙ্গিপুর: হাসপাতালে ভর্ত্তি থাকা এক রোগীকে ধর্ষণের চেষ্টায় হাতেনাতে ধরা পড়লেন অভিযুক্ত। সোমবার রাতে মুর্শিদাবাদ জেলার জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালের ঘটনা। মঙ্গলবার সকালে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে রঘুনাথগঞ্জ থানার পুলিশ।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, গত ২১ তারিখ ধুলিয়ানের এক যুবতী হৃদরোগের সমস্যা নিয়ে জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্ত্তি হন। প্রথমে মেডিসিন বিভাগে ভর্ত্তি থাকার পরে চিকিত্সকরা তাঁকে এইচ.ডি.ইউ তে চিকিত্সার জন্য স্থানান্তরিত করেন। সেখানে রাতের বেলা চতুর্থ বিভাগের অস্থায়ীকর্মী হিসেবে কর্মরত ছিলেন রঘুনাথগঞ্জের বাসিন্দা তারক সূত্রধর। তাঁর বিরুদ্ধেই ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে।

- Advertisement -

এদিকে, সরকারি নিযমানুযায়ী ওই ওয়ার্ডে রোগীর পরিজনকে থাকতে দেওয়া হয় না। রোগীর দায়িত্ব থাকে চিকিৎসকদের উপরে। সূত্রের দাবি, সোমবার রাতে ওই ওয়ার্ডের সবাই ঘুমিয়ে পড়লে তারক ওই রোগীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। সে সময় ওই যুবতী চিৎকার করতে শুরু করলে সকলে জেগে যায়। ওয়ার্ড থেকে পালিয়ে আসেন তারক। তবে, হাসপাতালে রাত কাটিয়ে সকালে বাড়ি ফেরার চেষ্টা করতেই রোগীর পরিবারের লোকজন সহ স্থানীয়রা তারককে ধরে গাছে বেঁধে পুলিশকে খবর দেয়।

ধৃতের বিরুদ্ধে রঘুনাথগঞ্জ থানা এবং হাসপাতালের সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন ওই রোগীর আত্মীয়রা। জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার ডঃ শায়ন দাস জানান, ‘‘সোমবার রাতে এইচ.ডি.ইউ ওয়ার্ডের এক রোগীকে হাসপাতালের এক চতুর্থ বিভাগের অস্থায়ী কর্মী ধর্ষণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ পেয়েছি। এই ধরনের ঘটনা কোনও ভাবেই মেনে নেওয়া যায়না। এরফলে, হাসপাতাল ও চিকিৎসকদের সম্মান হানি হয়। মানুষ হাসপাতালে আসা বন্ধ করে দেবেন। তারককে যে সংস্থার মাধ্যমে কাজে নেওয়া হয়েছিল, সেখানে বিষয়টি জানানো হয়েছে। পুলিশকেও যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন করা হয়েছে।