রিচাকে তিন নম্বরে চান মিতালি

ম্যাকাই : মুকুটে নজিরের নতুন পালক। তবু স্মরণীয় দিনে অধরা জয়। অস্ট্রেলিয়া সফরে প্রথম ম্যাচের অভিজ্ঞতা বেশ অম্ল-মধুর হয়ে থাকল ভারত অধিনায়ক মিতালি রাজের জন্য।

মহিলা ক্রিকেটে সর্বাধিক রানের কৃতিত্ব আগেই নিজের নামে করেছেন মিতালি। মঙ্গলবার ছুঁয়ে ফেললেন ২০,০০০ রানের মাইলফলকও। মেগ ল্যানিংয়ের অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তাঁর ব্যাট থেকে এল ১০৭ বলে ধৈর্য্শীল ৬১ রান। এই নিয়ে টানা পাঁচটি একদিনের ম্যাচে অর্ধশতরান করলেন মিতালি। ৫৯তম হাফসেঞ্চুরির দিনে অবশ্য বিফলে গেল তাঁর লড়াই। ভারতকে ৯ উইকেটে পর্যদুস্ত করে রেকর্ড সংখ্যক টানা ২৫তম ওডিআই জয় ল্যানিংদের।

- Advertisement -

স্মৃতি মান্ধানার (১৬) মতো ব্যর্থ অপর ওপেনার শেফালি ভার্মাও (৮)। অভিষেকে ব্যাট হাতে নজর কাড়লেন স্বস্তিকা ভাটিয়া (৩৫)। তৃতীয় উইকেটে তিনি এবং মিতালির জুটিতে উঠল ৭৭ রান। তবে একসময় দুশোর গণ্ডি পার হওয়া কষ্টকর মনে হচ্ছিল ভারতের জন্য। লোয়ার অর্ডারে বাংলার দুই মুখ রিচা ঘোষ (২৯ বলে অপরাজিত ৩২) ও ঝুলন গোস্বামীর (২০) আক্রমণাত্মক ব্যাটে সেই কাজ সহজ হয়।

এরআগে টি২০ বিশ্বকাপে খেললেও একদিনের ক্রিকেটে মঙ্গলবার অভিষেক হল শিলিগুড়ির রিচার। তাঁর ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে মুগ্ধ মিতালি। পরের ম্যাচে তাঁকে ব্যাটিং অর্ডারের তিন নম্বরে তুলে আনার ইঙ্গিত ভারত অধিনায়কের গলায়। মিতালি বলেন, টি২০ স্কোয়াডের হয়ে লোয়ার অর্ডারে রিচা এর আগে খেলেছে। তাই ওডিআই অভিষেকে যাতে ও স্বচ্ছন্দবোধ করে, সেইরকম দায়িত্ব ওকে দেওয়া হয়েছিল এবং সেই ভূমিকায় ও যথেষ্ট নজর কেড়েছে। ওকে ব্যাটিং অর্ডারের ওপরের দিকে খেলানো যায় কি না সেটা নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্ট ভাবনাচিন্তা রয়েছে।

ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার সামনে ২২৬ রানের লক্ষ্যমাত্রা রেখেছিল মিতালির ভারত। অ্যালিসা হার্লির (৭৭) উইকেট খুঁইয়ে জয়ে সেই লক্ষ্যপূরণ করে অজি দল। ৯৩ রানে অপরাজিত ছিলেন র‌্যাচেল হেন্স, সঙ্গী অধিনায়ক ল্যানিং (অপরাজিত ৫৩)। ম্যাচের সেরা হয়েছেন চার উইকেট নেওয়া ডার্সি ব্রাউন। ম্যাচ শেষে ভয়ডরহীন ক্রিকেটের চেয়ে জয়ে জন্য বড় রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলা বিশেষ দরকার বলে স্পষ্ট ঘোষণা মিতালির।