পেটের দায়ে খেতমজুরের কাজ করছেন পুরস্কার জয়ী লেখক

447
প্রতীকী ছবি।

মুম্বই: করোনার গেরোয় কলম ছেড়ে লাঙল ধরতে হল সাহিত্য অ্যাকাডেমি যুব পুরস্কারে সম্মানিত লেখক অধ্যাপক নবনাথ গোরেকে।

মহারাষ্ট্রের আহমেদনগর জেলার বাসিন্দা ৩২ বছরের গোরে স্থানীয় একটি কলেজে শিক্ষকতার কাজ করতেন। রোজগার হত মাসে ১০ হাজার টাকার মতো। কিন্তু লকডাউনের জেরে সেই কলেজ আপাতত বন্ধ। ফলে বন্ধ রোজগারও। এই অবস্থায় খেতমজুরের কাজ নিতে হয়েছে গোরেকে। কিন্তু গ্রামে ফেরা পরিযায়ী শ্রমিকদের ভিড়ে খেতমজুরের কাজও এখন অমিল। গ্রাম থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে কোনওদিন আধবেলা, কোনওদিন পুরো বেলা কাজ করে ২০০ থেকে ৪০০ টাকার বেশি উপার্জন হয় না তাঁর।

- Advertisement -

মারাঠি ভাষায় গোরের লেখা রচনা ফেসাতিতে গ্রামীণ কৃষকদের দুঃখকষ্টের পাশাপাশি সংগ্রামের কথাও এসেছে। এখন নিজে তার চেয়ে কঠিন লড়াইয়ের মুখে পড়েছেন শিবাজী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনী গোরে।