রায়গঞ্জ ১৭ নভেম্বরঃ ‘বিজেপির প্রার্থীকে হারাতে তৃণমূল ঝাঁপিয়ে পড়ে সন্ত্রাসের আবহ সৃষ্টি করছে। এদের মূল লক্ষ্য ভোট লুট করা। সুচারুভাবে বামপন্থী কায়দায় পুলিশ গুন্ডা নিয়ে ভোট লুট করতে ঝাঁপিয়ে পড়ছে তৃণমূল’। কালিয়াগঞ্জের দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে নির্বাচনী প্রচারে যাওয়ার আগে রবিবার সাংবাদিক সম্মেলনে এই কথাই বললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। রবিবার কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপ নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী কমল সরকারের সমর্থনে শহরের হাসপাতালপাড়া ময়দানে বিকেলে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় যোগ দিতে হেমতাবাদ থেকে বাইক চালিয়ে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে  র‍্যালি করে কালিয়াগঞ্জে আসেন তিনি। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘লোকসভায় বিপুল ভোটে আমাদের প্রার্থী জয়ী হয়েছে। এবারও কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা উপনির্বাচনে আমাদের প্রার্থীই জয়ী হবে। আর জয়ী হওয়ার কথা জেনেই বামপন্থীদের নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার চেষ্টা করছে তৃণমূল। শাসক দলেদের হয়ে ভেতরে ভেতরে কাজ করছে পুলিশ। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলের নেত্রী হিসেবেই সব জায়গায় প্রতিষ্ঠিত করেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নিজেকে উপস্থাপিত করেন না। দলের নেত্রী হিসেবেই সমস্ত ঘোষণা করেন এবং বিজেপির নামে বদনাম করেন’।

কেন্দ্রীয় বাবুল সুপ্রিয় ছারাও এদিনের প্রচার সভায় ছিলেন বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি দেবজিৎ সরকার, নির্মল দাম, বিপ্লব মিত্র, জেলা যুব মোর্চা সভাপতি ভক্ত কুমার রায়, অমিত সাহা, বিশ্বজিৎ লাহিড়ী, শিবানী মজুদার, জেলা মহিলা মোর্চার সভানেত্রী দোলা মোদক।