করোনা টিকা নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ বাবুলের

101

আসানসোল: চাল ও আমপানের টাকা চুরির মতো যেন করোনার টিকা চুরি না হয় সেটা দেখতে হবে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীকে এভাবেই কটাক্ষ করলেন আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার করোনার টিকা বিনামূল্যে দিচ্ছে। সেখানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দাবি করছেন, উনি এই টিকা দিচ্ছেন। এইসব একবারে মিথ্যে কথা। ভোট আসছে বলে তিনি এইসব মিথ্যা কথা বলছেন রাজ্যের মানুষের কাছে।’

এদিন দুপুরে আসানসোলের সেনরেলে রোডে রেলের আণ্ডারপাসের নতুনভাবে সংস্কার ও সৌন্দর্যায়নের উদ্বোধন করেন আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। অন্যদের মধ্যে ছিলেন আসানসোলের ডিআরএম সুমিত সরকার। সেই অনুষ্ঠানেই টিকা বা ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বাবুল মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সরকারকে একহাত নেন। বাবুল সুপ্রিয় বলেন, ‘ভ্যাকসিন কেন্দ্র সরকার বিনামূল্যে দিচ্ছে। কেন্দ্র সরকার অনেকদিন আগেই তা ঘোষণা করেছে। সোমবার সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তা জানিয়েছেন।’

- Advertisement -

বাবুল আরও বলেন, ‘কেন্দ্রের স্বাস্থ্য দপ্তর তো রাজ্যে এসে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেবে না। তা করতে হবে রাজ্যে স্বাস্থ্য দপ্তর ও কর্মীদের মাধ্যমেই। আমপানের টাকা ও চাল চুরির মতো টিকা চুরি না হয়ে দাঁড়ায় সেটা শুধু মুখ্যমন্ত্রীকে দেখলেই হবে।’

সোমবার অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় আসানসোল পুরনিগমের পুর প্রশাসক পদে বসার পরে তৃণমূলের একাংশ দাবি করেছিলে যে, এবার যোগ্য লোককে বসানো হল পুর প্রশাসকের পদে। তৃণমূলের সেই দাবিকে কার্যত নস্যাৎ করে দিলেন আসানসোলের সাংসদ। মঙ্গলবার আসানসোলে তিনি জিতেন্দ্র তিওয়ারির প্রশংসায় বলেন, ‘জিতেন্দ্র তেওয়ারির কাছে অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়ের কাজ শেখা উচিত।’ বাবুল সুপ্রিয়র কটাক্ষ, ‘অমরনাথবাবু অমর থাকুন। উনি যেহেতু নতুন এসেছেন তাই ওঁনার উচিত জিতেন্দ্র তিওয়ারির কাছে গিয়ে কাজ শিখে নেওয়া।’

বাবুল সুপ্রিয়র কাছে জানতে চাওয়া হয়, পুর প্রশাসক হয়েই অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় দাবি করেছেন কেন্দ্রের কোনও টাকা আসানসোল পুরনিগম পায়নি। কেন্দ্রীয় প্রকল্পে ১০০ কোটি টাকার মধ্যে অর্ধেক পাওয়ার ছিল সেই টাকা তারা এখনও পাননি। সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে বাবুল সুপ্রিয় কটাক্ষ করেন অমরনাথবাবুকে। তিনি বলেন, ‘উনি সবেমাত্র এসেছেন। কিছু জানেন না। পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে জিতেন্দ্র তিওয়ারি যে চিঠি লিখেছিলেন ওঁনার উচিত সেই চিঠিটি খতিয়ে পড়া। সেখানে পরিষ্কার লেখা রয়েছে, কেন্দ্রের টাকা রাজ্যের মাধ্যমে পুরনিগমের কাছে আসে। এসব না জেনে অমরবাবু খেলো মন্তব্য করে নিজেকে হাসির খোরাক করছেন।’

অন্যদিকে, আসানসোলের পুর প্রশাসক পালটা বাবুল সুপ্রিয়কে আক্রমণ করে বলেন, ‘জিতেন্দ্র তিওয়ারির উপর তাঁর যদি এতোই টান তাহলে তিনি তাঁর বিজেপিতে আসা আটকাতে তৎপর কেন? কেনই বা জিতেন্দ্র তিওয়ারি তৃণমূল কংগ্রেসে এখন থাকতে চাইছেন। আমি যা বলেছি, তা একদম ঠিক। কোনও মিথ্যে কথা বলিনি।’