পুকুর থেকে নিখোঁজ শিশুর দেহ উদ্ধার

272

হেমতাবাদ: নিখোঁজ হওয়ার ২৪ ঘণ্টা পর বাড়ি সংলগ্ন পুকুর থেকে তিন বছরের শিশুর দেহ উদ্ধার করল হেমতাবাদ থানার পুলিশ। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। শনিবার বিকেলে ওই শিশুর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের হাতে তুলে দেয় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত শিশুর নাম রোহিত রায় (৩)। বাড়ি হেমতাবাদ থানার দেহচিতে। গতকাল সকাল এগারোটা নাগাদ নিখোঁজ হয়ে যায় ওই শিশু। খোঁজাখুজি করেও কোনও হদিস পাওয়া যায়নি। এরপর এলাকার বাসিন্দাদের সন্দেহ হয়, বাড়ি সংলগ্ন পুকুরে পড়ে মৃত্যু হয়েছে শিশুর। হেমতাবাদ থানার পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীরা গিয়ে রাতভর খোঁজাখুঁজি করেও হদিশ পায়নি।

- Advertisement -

এদিন সকালে বাড়ির সংলগ্ন পুকুর থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। একমাত্র ছেলের মৃত্যুর খবর শুনে দিল্লি থেকে হেমতাবাদের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে মৃত শিশুর বাবা ষষ্টি রায়। এদিন হাসপাতাল চত্বরে মৃতের কাকা জয়ন্ত রায় বলেন, দীর্ঘ কয়েকদিন ধরেই আমার বৌদিকে ভাইপো বলছিল সে জলে ডুবে মরে যাব। সেই আশঙ্কাটাই সত্যি হল। একই কথা বললেন মৃতের জ্যাঠা শম্ভু রায়। একমাত্র ছেলের মৃত্যুতে বারবার সংজ্ঞা হারাচ্ছেন মৃত শিশুর মা সাধনা রায়।