ক্যানাল রোড বেহাল, পর্যটনে ক্ষতির আশঙ্কা

349

শুভদীপ শর্মা  লাটাগুড়ি : লাটাগুড়ি থেকে ক্রান্তি হয়ে শিলিগুড়িগামী ক্যানাল রোড দীর্ঘদিন বেহাল অবস্থায় রয়েছে। শুধুমাত্র লাটাগুড়ি বা ক্রান্তি নয়, এই রাস্তাটি গরুমারায় বেড়াতে আসা পর্যটকদের কাছেও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পুজোর মুখে বেহাল রাস্তা চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ডুয়ার্সের পর্যটন ব্যবসাযীদের কাছে। পুজোয় ব্যবসা মার খাওয়ার আশঙ্কা করছেন তাঁরা। যদিও পর্যটনমন্ত্রী পুজোর আগে ওই রাস্তার মেরামতির ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু পুজোর আর হাতেগোনা কয়েকদিন বাকি। এর মধ্যে আদৌ ওই রাস্তার মেরামতি সম্ভব কিনা তা নিয়ে চিন্তিত পর্যটন ব্যবসায়ীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্যানাল রোড দিয়ে লাটাগুড়ি থেকে শিলিগুড়ি যেতে মাত্র ৪৭ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে হয়। অপরদিকে, ঘুরপথে ময়নাগুড়ি হয়ে শিলিগুড়ি যেতে হলে প্রায় ৮৭ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে হয়। এর ফলে সময় ও অর্থ দুয়েরই অপচয় হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, অনেকদিন ধরে ওই রাস্তাটি খারাপ অবস্থায় রয়েছে। কিন্তু রাস্তাটির সংস্কারের ব্যাপারে প্রশাসন উদ্যোগী হয়নি। রাস্তাটির বিভিন্ন জায়গায় বড়ো বড়ো গর্ত তৈরি হয়েছে। সেখানে প্রায়ই ছোটো-বড়ো দুর্ঘটনা ঘটছে। গত তিনমাস গরুমারায় পর্যটকদের প্রবেশ নিষেধ ছিল। তবে ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ফের জঙ্গল খুলে গিয়েছে। এছাড়া সামনেই পুজোর মরশুম। এই সময় লাটাগুড়ি, মূর্তি, ঝালং, বিন্দু সহ বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটকদের ভিড় উপচে পড়ে। আর এই পর্যটনকেন্দ্রগুলির সঙ্গে শিলিগুড়ির যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হল ক্যানাল রোড। কিন্তু লাটাগুড়ি থেকে কাঠামবাড়ি পর্যন্ত এই রাস্তাটির অবস্থা খুবই বেহাল। ফলে ওই রাস্তা দিয়ে কেউই যাতায়াত করতে রাজি হচ্ছেন না।

- Advertisement -

লাটাগুড়ি রিসর্ট ওনার্স অ্যাসোসিয়েনের সম্পাদক তথা ডুয়ার্স টুরিজম ফোরামের সাধারণ সম্পাদক দিব্যেন্দু দেব বলেন, অনেকদিন ধরে গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি বেহাল অবস্থায় রয়েছে। আমরা প্রশাসনের বিভিন্ন মহলে এই রাস্তাটির মেরামতের দাবি জানিয়েছিলাম। গজলডোবা সংলগ্ন এলাকায় রাস্তার সংস্কারের কাজ শুরু হলেও পুজোর আগে কাজ শেষ হবে না। রাস্তার এই হাল থাকলে পুজোয় পর্যটকরা ডুয়ার্সমুখো হবেন না। এতে ক্ষতির মুখে পড়তে হবে কয়েক হাজার পর্যটন ব্যবসায়ীকে। গাড়িচালক রাজা দে বলেন, শুধুমাত্র ক্যানালের ওই রাস্তাই নয়, ময়নাগুড়ি হয়ে শিলিগুড়িগামী সড়কের অবস্থাও খারাপ। প্রতিদিন গাড়ির যন্ত্রাংশ বিকল হচ্ছে। পর্যটকদের নিয়ে সুরক্ষিতভাবে গন্তব্যে পৌঁছানো নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। তবে এ ব্যাপারে রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, গুরুত্বপূর্ণ লাটাগুড়ি-শিলিগুড়িগামী ক্যানাল রোডের মেরামতি শুরু হয়েছে। পুজোর আগেই কাজ শেষ হবে।