সংস্কারের ৩ মাসেই রাস্তা ভেঙে গিয়েছে ফালাকাটায়

224

সুকমল ঘোষ, ফালাকাটা : ফালাকাটা শহরে সংস্কারের ৩ মাসের মধ্যেই পাকা রাস্তার পাথর উঠে গিয়ে গর্ত তৈরি হয়েছে। শহরের বাবুপাড়া দুর্গামন্দির রোডের এই হাল নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে এলাকায়। বাসিন্দাদের অভিযোগ, নিম্নমানের কাজ হওয়ায় মাত্র ৩ মাসেই রাস্তার কঙ্কালসার চেহারা বেরিয়ে পড়েছে।

শহরের বাবুপাড়া দুর্গামন্দির থেকে ডাকবাংলো রোড হয়ে সুভাষপল্লি দুর্গামন্দির পর্যন্ত রাস্তাটি দীর্ঘদিন বেহাল অবস্থায় ছিল। ৪৩০ মিটার ওই রাস্তাটি পূর্ণাঙ্গ সংস্কারের জন্য ৬ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ করেছিল উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতি থেকে ওই কাজের বরাত পেয়েছিলেন আলিপুরদুয়ারের ঠিকাদার উদয়শংকর নিয়োগী। রাস্তার কাজের ওয়ার্ক ওর্ডার হওয়ার পর শুরু থেকেই ওই কাজে নানা জটিলতা দেখা দেয়। নির্মাণসামগ্রী ফেলার পরেও দীর্ঘদিন কাজটি ফেলে রেখেছিল ঠিকাদারি সংস্থা। প্রায় এক বছর লাগে ওই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করতে। এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, ঠিকাদার কাজ শেষ করে চলে যাওয়ার দুসপ্তাহ পর থেকেই রাস্তার পাথর উঠতে শুরু করে। এর পর রাস্তার মাঝে বেশ কয়েক জায়গায় পিচ ও পাথর উঠে গিয়ে গর্ত তৈরি হয়েছে। রাস্তার একাধিক জায়গায় ফাটলও দেখা দিয়েছে। তাই কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা। স্থানীয় বাসিন্দা অরিজিৎ চন্দ বলেন, রাস্তাটি মেরামতির জন্য সরকারি বরাদ্দের পরিমাণ খুবই কম ছিল। এত কম টাকায় ওই কাজ শেষ করতে গিয়ে ঠিকাদার নিম্নমানের কাজ করে গিয়েছেন। প্রশাসনকে বারবার বিষয়টি জানিয়ে কোনও সুরাহা হয়নি। তাতে অল্পদিনের মধ্যে রাস্তাটির এমন বেহাল দশা হয়েছে, যার ফল ভুগতে হচ্ছে এলাকার বাসিন্দাদের। প্রশাসনের কাছে আমরা অবিলম্বে ওই রাস্তা পুনর্নির্মাণের দাবি জানাব।

- Advertisement -

এ ব্যাপারে ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুরেশ লালা বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে দ্রুত পদক্ষেপ করা হবে। ফালাকাটার বিডিও সুপ্রতীক মজুমদার জানিয়েছেন, ওই রাস্তার পরিস্থিতি ও কাজের মান খতিয়ে দেখতে শীঘ্রই ব্লকের সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ারকে পাঠানো হবে। নির্মাণকাজে যদি ত্রুটি থেকে থাকে, ঠিকাদারকে দ্রুত তা মেরামত করে দিতে হবে। এখনও ওই ঠিকাদারি সংস্থাকে কাজের কোনও পেমেন্ট করা হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ঠিকাদার উদয়শংকর নিয়োগী। তিনি বলেন, ওই রাস্তার যে অংশ ভেঙেছে, তার তলায় পিএইচইর পাইপলাইন রয়েছে। ওই পাইপলাইনে লিকেজ থাকায় জল বাইরে বেরিয়ে আসার কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে। এতে আমাদের কিছু করণীয় নেই। তবে রাস্তার কোথাও ফাটল দেখা দিলে আমরা তা সারিয়ে দিতে পারি।