বুমরাহর বিকল্প হতে পারে সিরাজ

চেন্নাই : জসপ্রীত বুমরাহ বিকল্প পাওয়া মুশকিল।

তবে প্রয়োজন পড়লে বুমরাহ-র অনুপস্থিতিতে মহম্মদ সিরাজকে দায়িত্ব দেওয়া যেতেই পারে। কারণ দুজনের বোলিংয়ে মধ্যে প্রচুর মিল রয়েছে। সিরাজ অনেকটাই বুমরাহ-র মতো। এমনই মত প্রাক্তন ভারতীয় বোলার লক্ষ্মীপতি বালাজির। এদিন বলেন, বুমরাহ অত্যন্ত প্রতিভাবান বোলার। ভারতীয় দলের জেনুইন ম্যাচ উইনার। ওর পুরোদস্তুর বিকল্প পাওয়া কার্যত অসম্ভব। তবে সিরাজের উপস্থিতি একটা সুযোগ কিন্তু এনে দিয়েছে। বলের লাইন, গতির ক্ষেত্রে দুজনের বোলিংয়ে যথেষ্ট মিল। বুমরাহ-র মতো সিরাজের বলও বাঁহাতি ব্যাটসম্যানদের বিরুদ্ধে একটা নির্দিষ্ট অ্যাঙ্গেলে বাইরে যায়। ডানহাতিদের ক্ষেত্রে সোজাসুজি যায়। এক না হলে, দুজনের বোলিং অনেকটাই কাছাকাছি।

- Advertisement -

বালাজির যুক্তি, বুমরাহকে কখনও পাওয়া না গেলে তার বিকল্প ভাবনা প্রস্তুত রাখা জরুরি। সিরাজ ঠিক এই জায়গাতেই টিম ম্যানেজমেন্টের তুরুপের তাস। আরও বলেন, দুজনের আউট করার ধরনের মধ্যে বেশ মিল রয়েছে। মূলত এলবি, বোল্ড, কট বিহাইন্ড। বুমরাহ কোনও ম্যাচে না খেললে, সেই জায়গাটা পূরণ করতে পারে সিরাজ। দুজনেই একই ধরনের বোলার হওয়ার ফলে, বোলিং-স্ট্র‌্যাটেজি, ট্যাকটিকাল দৃষ্টিভঙ্গির ক্ষেত্রে সুবিধা হবে থিংকট্যাংকের। অস্ট্রেলিয়া সফরে বুমরাহ, সামিকে ছাড়াই কিন্তু ২০ উইকেট নিয়ে দেখিয়েছে বাকি বোলাররা। এটা সম্ভব হয়েছে ট্যাকটিক্স ও স্কিলের যথাযথ সমন্বয় হওয়ার কারণেই।

অবশ্য প্রথম পছন্দের পেস ব্রিগেড বাছতে বসে মহম্মদ সামি, জসপ্রীত বুমরাহর সঙ্গে ইশান্তকেই রাখছেন বালাজি। একইসঙ্গে রোটেশনেও গুরুত্ব দিলেন। চেন্নাই সুপার কিংসের বোলিং কোচের কথায়, ভারতীয় দলে সবচেয়ে স্কিলফুল পেসার হল মহম্মদ সামি ও জসপ্রীত বুমরাহ। বুমরাহ-র গতিটাও বেশ ভালো। অপরদিকে, ইশান্তের অভিজ্ঞতা সম্পদ। মূল তিন বোলার। তবে রোটেশনের পক্ষপাতী আমি। কারণ, এই তিনের বাইরে ভুবনেশ্বর কুমার, শার্দুল ঠাকুর, মহম্মদ সিরাজরাও রয়েছেন। প্রত্যেকেই যাতে মানসিক ও শারীরিকভাবে তরতাজা হয়ে ঝাঁপাতে পারে, তা সুনিশ্চিত করতে রোটেশন জরুরি।