বালুরঘাট, ১৫ মেঃ গভীর রাতে বালুরঘাট হাসপাতালে মদ্যপদের তাণ্ডব। বিকল হল লিফট, ভাঙল চেয়ার ও অন্যান্য সামগ্রী। বাধা দিতে এলে মারধর করা হল অস্থায়ী নিরাপত্তা কর্মীকেও। এমন অভিযোগকে কেন্দ্র করে সরগরম বালুরঘাট হাসপাতাল। এই ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার সকাল থেকে বালুরঘাট জেলা সদর হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষীরা কর্মবিরতি শুরু করেন। যদিও পরে হাসপাতাল সুপারের হস্তক্ষেপে আন্দোলন তুলে নেওয়া হয়। ঘটনায় বালুরঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগ পেয়েই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করেছে বালুরঘাট থানার পুলিশ। আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। পাশাপাশি গোটা ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে বালুরঘাট শহরের বেলতলা পার্ক এলাকার এক রোগীকে ভরতি করে পরিবারের লোকজন। বালুরঘাট হাসপাতালের পুরানো ভবনের তিনতলায় ওই রোগীকে দেখে নিচে নামার সময় গোলমাল বাধে। হাসপাতালের রোগীদের ওঠানামা কমানোর জন্য লিফটের ব্যবস্থা রয়েছে। পরিবারের লোকজনদের ওঠানামার জন্য রয়েছে সিঁড়ি। অভিযোগ, রোগীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে একদল দুষ্কৃতীও লিফটে চেপে নীচে নামবার জন্যে অপেক্ষা করতে থাকে। লিফট আসতে দেরি হওয়ার তারা ধৈর্য হারিয়ে লিফটের দরজার মধ্যে লাথালাথি করতে থাকে বলে অভিযোগ। এর জেরে ওই লিফটটি খারাপ হয়ে যায়। নিরাপত্তারক্ষী সুদেব বর্মন সে সময়ে এসে ঘটনার প্রতিবাদ করলে তাঁকে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। পাশাপাশি হাসপাতালের তিনতলায় থাকা শিশু বিভাগের সামনে কিছু আসবাবপত্র ও অন্যান্য সামগ্রী ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ।

ছবিঃ মাজিদুর সরদার