চতুর্থীতেই পুজো মণ্ডপগুলিতে বসছে ব্যারিকেড, যানজট নিয়ন্ত্রণে বিশেষ পরিকল্পনা পুলিশের

235

কলকাতা: সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের দর্শকশূন্য পুজোমণ্ডপ রায়ের পর মঙ্গলবার সকাল থেকেই বহু পুজোমণ্ডপ ব্যারিকেড বসাতে শুরু করেছে। তবে, বেশ কিছু পুজোমণ্ডপ আগেই ব্যারিকেডের ব্যবস্থা করে রেখেছিল। ব্যারিকেডের পাশাপাশি কোথাও কোথাও পুজো মন্ডপের অদূরে বিশালাকার এলইডি স্ক্রিন লাগানো হয়েছে। সেই এলইডি’র মাধ্যমে দর্শনার্থীরা  পুজো দেখতে পারবেন।

কলকাতার সন্তোষ মিত্র স্কোয়ার পুজো কমিটির সচিব সহাল ঘোষ বলেন, ‘‌আমরা ইতিমধ্যেই দর্শনার্থীদের পুজোমণ্ডপে প্রবেশ নিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছি। স্থানীয় কিছু মানুষকে অনুমতি দিয়েছি, তবে ভিড় করা যাবে না। আমরা কলকাতা হাইকোর্টের রায় অক্ষরে অক্ষরে পালন করব।’‌  সল্টলেকের এফডি ব্লক পুজো কমিটির সদস্য বাণীব্রত ব্যানার্জি বলেন, ‘আমরা এবার পুজোমণ্ডপ থেকে নির্দিষ্ট দূরে ব্যারিকেড করেছি। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য রিং করেছি রাস্তায়। যাতে কোনও অসুবিধা তৈরি না হয়।’‌

- Advertisement -

অন্যদিকে পুলিশের তরফে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণের বিশেষ পরিকল্পনা গ্রেহণ করা হয়েছে। গত কয়েক বছরের অভিজ্ঞতার নিরিখে কোথায়, কোন রাস্তায় জমায়েত বা গাড়ির চাপ বেশি, তা চিহ্নিত করে এই পরিকল্পনা হয়েছে। পুলিশ সূত্রের খবর, সল্টলেক, নিউ টাউন, ভিআইপি রোডের দু’ধারের পুজো এবং যশোর রোড থেকে কমিশনারেট এলাকার প্রবেশপথ ঘিরে তৈরি হয়েছে বিশেষ পরিকল্পনা। ট্র্যাফিক কর্মীদের দু’টি শিফটে ভাগ করে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বিকেল ৪টে থেকে পরের দিন সকাল ৬টা পর্যন্ত এবং ভোর ৫টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ডিউটি থাকছে। এছাড়াও, দুর্গাপুর ব্রিজ থেকে দমদম পার্ক পর্যন্ত অংশকে ছ’টি এলাকায় ভাগ করা হচ্ছে। প্রতিটি এলাকার দায়িত্বে থাকবেন এক জন করে ট্র্যাফিক ইনস্পেক্টর। ভিআইপি রোডের ওই অংশে ফুটব্রিজ বন্ধ থাকছে। জরুরি কারণ ছাড়া কাউকে ফুটব্রিজ ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না। পাতিপুকুরের দিক থেকে যশোর রোড ধরে লেক টাউন, বাঙুর, দমদম পার্ক এলাকার দিকে পার্কিং করতে দেওয়া হবে না বলে জানান এক ট্র্যাফিক কর্তা।