বায়ার্নের বিরুদ্ধে বদলার ম্যাচে অ্যাডভান্টেজ প্যারিসের

মিউনিখ : গতবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের রিপ্লে এবার কোয়ার্টার ফাইনালে। কিন্তু এবার বায়ার্ন মিউনিখ নয়, ফেভারিট হিসেবে নামবে প্যারিস সাঁ জাঁ।

আন্তর্জাতিক বিরতিতে দেশের জার্সিতে খেলার সময় চোট পেয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে গিয়েছেন বায়ার্নের প্রধান স্ট্রাইকার রবার্ট লেওয়ানডস্কি। বুধবার রাতের ম্যাচের একদিন আগে গলার সমস্যার জন্য ছিটকে যাওয়ার মুখে সের্জে গ্যানাব্রিও। চলতি বছর ঘরোয়া লিগ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিলে ১০৩ গোল করেছে বায়ার্ন। এরমধ্যে ৪৬টি গোলই লেওয়ানডস্কি করেছেন বা করিয়েছেন। তার অনুপস্থিতিতে বায়ার্ন কোচ হ্যান্সি ফ্লিকের প্রধান ভরসা ছিলেন গ্যানাব্রি। মঙ্গলবার দলের সঙ্গে অনুশীলন করেননি এই জার্মান উইঙ্গার। যা নিয়ে ফ্লিক বলেন, গলায় সংক্রমণের জন্য গ্যানাব্রি আজ অনুশীলনে আসেনি। সম্ভবত প্যারিস ম্যাচে ও খেলতে পারবে না।

- Advertisement -

এমন অবস্থায় ফরওয়ার্ড হিসেবে ফ্লিকের বাজি বিভীষণ এরিক ম্যাক্সিম চৌপ-মোতিং। চলতি মরশুমের শুরুতেই প্যারিস ছেড়ে জার্মানির ক্লাবে যোগ দিয়েছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে এরিকের বক্তব্য, এই ম্যাচটা গতবারের ফাইনাল থেকে আলাদা। আমরা কেউই আশা করিনি এত দ্রুত প্যারিস আর বায়ার্ন মুখোমুখি হবে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ১৯ ম্যাচ হারেনি বায়ার্ন। তবে প্যারিসের বিরুদ্ধে শেষ ৯ সাক্ষাতে ৫ বার হেরেছে তারা। এই পরিসংখ্যান বদলাতে মরিয়া হবেন ফ্লিক।

বায়ার্নের বিরুদ্ধে নামার আগে করোনা নিয়ে নাজেহাল প্যারিস কোচ মৌরিসিও পচেত্তিনো। মিডফিল্ডার মার্কো ভেরাত্তি ও ডিফেন্ডার আলেসান্দ্রো ফ্লোরেঞ্জি সংক্রামিত হয়ে আইসোলেশনে। এরমধ্যে ফ্লোরেঞ্জির বদলি থিও খেরার হলেও ভেরাত্তির পরিবর্ত নিয়ে বেশ চাপে পচেত্তিনো। প্যারিসের মাঝমাঠের ইঞ্জিন ভেরাত্তির অভাব যে বায়ার্নের মতো দলের বিরুদ্ধে বড় হয়ে দাঁড়াবে, তা জানেন তিনি। তবে ফরওয়ার্ডে কিলিয়ান এমবাপের পাশে নেইমার ও অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার উপস্থিতি স্বস্তি দেবে তাঁকে। আগের পর্বে বার্সেলোনাকে হারানোর ক্ষেত্রে এমবাপে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন (দুই ম্যাচে চার গোল)। গত সাক্ষাতের বদলা নিতে প্যারিসের বাজি এই ফরাসি তারকাই।