মুরতুজ আলম, সামসী : করোনা সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। আর এই লকডাউনের জেরে স্বামী ভিনরাজ্যে আটকে পড়ায় অসুস্থ কন্যাসন্তানকে কোলে নিয়ে চাঁচল-১ ব্লকের উন্নয়ন আধিকারিকের দ্বারস্থ হলেন স্ত্রী। অসহায় ওই মহিলার নাম মর্জিনা বিবি। ওই মহিলার পাশে দাঁড়িয়ে তাঁকে অর্থ সাহায্য সহ অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা করে মানবিকতার পরিচয় দেন বিডিও সমীরণ ভট্টাচার্য।

চাঁচল-১ ব্লকের মকদমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের হাজাতপুর গ্রামের বাসিন্দা রবিউল ইসলাম রাজস্থানের জয়পুরে শ্রমিকের কাজে গিয়ে লকডাউনের ফলে সেখানে আটকে পড়েন। বাড়িতে অসহায় স্ত্রী মর্জিনা বিবি তিনমাসের কন্যাসন্তান নিয়ে রয়েছেন। বাবা ভিনরাজ্যে থাকায় জন্মের পর মেয়ের মুখ এখনও দেখেননি। গত কয়েকদিন আগে কন্যাসন্তান রানির পেট ব্যথা হলে দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে তাকে চিকিৎসার জন্য চাঁচল সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করেন মর্জিনা। কিন্তু চিকিৎসক রানির পেটে সংক্রমণজনিত কারণ দেখিয়ে তাকে মালদায় রেফার করে দেন। হাতে কোনও টাকা পয়সা না থাকায় ওই মর্জিনা বিডিওর দ্বারস্থ হন। বিডিও বলেন, ভিনরাজ্যে কাজে গিয়ে লকডাউনে আটকে পড়েন মর্জিনা বিবির স্বামী। এদিকে তাঁর তিন মাসের শিশুকন্যা অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি তাঁর সাহায্য প্রার্থনা করেন।

- Advertisement -

এদিকে মর্জিনা বিবি বিডিওর দ্বারস্থ হলে তিনি নিজ খরচে তাঁকে একটি অ্যাম্বুল্যান্স ভাড়া করে দেন। পাশাপাশি মর্জিনাকে কিছু নগদ অর্থও সাহায্য করেন বিডিও। এরপর মর্জিনা মেয়ে রানিকে চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিকেলে নিয়ে যান। তবে বিডিওর মানবিকতায় অত্যন্ত খুশি মর্জিনা জানান, অসময়ে বিডিও তাঁর পাশে না দাঁড়ালে কোলের শিশুকন্যাকে তিনি অকালে হারাতেন। আল্লাহ যেন বিডিওর মঙ্গল করেন। বিডিওর কাছে তিনি চির ঋণী থাকবেন। বিডিওকে তিনি তার জন্য ধন্যবাদও জানান। বিডিওর সমীরণ ভট্টাচার্যের এই কাজে খুশি চাঁচলের আপামর জনসাধারণ।