উপভোক্তাদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়াল বিডিও অফিসের কর্মীরা

119

চোপড়া: চোপড়া বিডিও অফিসে রুপশ্রী প্রকল্পে উপভোক্তাদের পরিবারের একাংশের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা ঘিরে চরম উত্তেজনা ছড়াল সোমবার। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের এক অফিসারকে হেনস্থা ও শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। যদিও এব্যাপারে এদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনও তরফেই পুলিশে লিখিত অভিযোগ জমা পড়েনি। তবে বিষয়টি ঘিরে এদিন বিকালে অফিসের ভেতরে দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি নিয়ে এদিন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজহারউদ্দিনের দপ্তরে দীর্ঘ সময় আলোচনাও চলে।

বিডিও অফিসের একাংশ সূত্রে খবর, রূপশ্রী প্রকল্পে উপভোক্তার টাকা পাইয়ে দেওয়ার ব্যাপারে মাঝেমধ্যেই অফিসে দালাল চক্রের ভিড় জমে। এদিন একাংশ অফিসে তাণ্ডব চালানোর চেষ্টা করে। এমনকি পঞ্চায়েত সমিতির এক এডুকেশন অফিসারকে হেনস্তা ও শারীরিকভাবে নির্যাতনের চেষ্টা চালায়। অভিযোগ ঘিরে এদিন বিকালে স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের একাংশ বিডিও অফিসে পৌঁছোলে উত্তেজনার পারদ বাড়তে থাকে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

- Advertisement -

চোপড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের যুব তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি হাসান কামাল রানা বলেন, ‘এদিন স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে রুপশ্রী প্রকল্পের উপভোক্তাদের একাংশের পরিবারের লোকজনের কাছে টাকা নেওয়ার অভিযোগে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এ ব্যাপারে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে বিষয়টি বিডিওর নজরে আনা হয়েছে।’

চোপড়া তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি তনয় কুন্ডু বলেন, ‘একটি অভিযোগ ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। এ ব্যাপারে খোঁজ নেওয়ার জন্য এদিন বিকেলে বিডিও অফিসে যাওয়া হয়েছিল।’ অন্যদিকে চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজহারউদ্দিন বলেন, ‘এদিন ভুল বোঝাবুঝিতে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে বিষয়টি মিটিয়ে নেওয়া হয়েছে।’

বিডিও শ্রেয়শ্রী নস্কর অবশ্য এবিষয়ে কোনও রকম মন্তব্য করতে চাননি। এমনকি তিনি এটাও জানান, এধরনের কোন ঘটনাই ঘটেনি।