ভারতীয় পড়ুয়াদের ত্রাতা ইজরায়েলের ক্রিকেট ক্লাব

বির্শেবা (ইজরায়েল) : এলাকায় আছড়ে পড়ছে একের পর এর রকেট। এমন অবস্থায় ভারতীয় গবেষকদের ত্রাতা হয়ে এল দক্ষিণ ইজরায়েলের বির্শেবা ক্রিকেট ক্লাব।

গত এক সপ্তাহে দক্ষিণ ইজরায়েলের বিভিন্ন এলাকায় তিন হাজারেরও বেশি রকেট ছুঁড়েছে প্যালেস্তাইনের জঙ্গিগোষ্ঠী হামাস। ফলে বিপাকে পড়েছিলেন বির্শেবা শহরের বেন-গুরিয়ন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল ভারতীয় গবেষক। এই পরিস্থিতিতে তাঁদের পাশে দাঁড়ান বির্শেবা ক্রিকেট ক্লাব কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ে পাশেই অবস্থিত এই ক্লাব আদতে একটি শেল্টার হাউজ। তাই রকেট হানা থেকে বাঁচতে স্থানীয় বাসিন্দারা এই ক্লাবে আশ্রয় নেন। তাঁদের সঙ্গে আশ্রয় পান ভারতীয় গবেষকরাও। ইতিমধ্যে এই রকেট হানায় ইজরায়েলে কর্মরত এক ভারতীয় নার্স প্রাণ হারিয়েছেন।

- Advertisement -

এ প্রসঙ্গে ক্লাবের চেয়ারম্যান নায়োর গুডকের বলেন, এই ভারতীয় গবেষকদের অনেকেই আমাদের ক্লাবের হয়ে ক্রিকেট খেলেন। ওঁরা আমাদের পরিবারের মতোই। তাই ওঁদের জানাই যে ওরা চাইলে ক্লাবের শেল্টার হাউজে আশ্রয় নিতে পারে। গত সপ্তাহে কয়েকজন ভারতীয় গবেষক আমাদের সঙ্গে থেকেছেন। আমরা তাঁদের যথাসাধ্য সাহায্য করার চেষ্টা করেছি। ওঁদের অনেকেই নিরাপত্তা বিধি সম্পর্কে তেমন ওয়াকিবহাল নন। আমি ও আমার সহকর্মীরা তাঁদের এই বিষয়ে অবহিত করার চেষ্টা করছি। ক্লাবের সদস্যরাই পালা করে শেল্টার হাউজে আশ্রয় নেওয়া বাসিন্দাদের দেখাশোনা করছেন।

গবেষক অঙ্কিত চৌহানের বক্তব্য, এখানে আমরা যে শুধু নিরাপদে আছি তা নয়। সবমিলিয়ে আমরা বেশ ভালো আছি। এখানে খাবার, চা, কফির ব্যবস্থা আছে। আমরা জিম ব্যবহার করতে পারছি। এমনতি বিনোদনের ব্যবস্থাও রয়েছে। ফলে আমরা বাইরে কি চলছে তা ভুলে থাকতে পারছি। এছাড়া সেখানে ভিরাজ ভিঙ্গারডিভে, হীনা খান্ড, শশাঙ্ক শেখর, রুদ্রারু সেঙ্গুতা এবং বিষ্ণু খান্ডের মতো ভারতীয় গবেষকরা রয়েছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, গত সোমবার থেকে প্রতিরাতেই রকেট হামলা চলছে। যদিও তাঁরা শেল্টার হাউজে নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারছেন।