মোতেরায় হঠাৎ ওজন কমার দাবি স্টোকসের

আহমেদাবাদ : নির্ণায়ক চতুর্থ টেস্টের সময় শারীরিক চ্যালেঞ্জের মুখেও পড়তে হয়েছিল ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের। এমনই দাবি করেছেন বেন স্টোকস। তারকা ইংরেজ অলরাউন্ডার জানিয়েছেন, চতুর্থ টেস্টের সময় হঠাৎ করে দলের ক্রিকেটারদের ওজন অনেকটা করে কমে গিয়েছিল!

এক সাক্ষাৎকারে বেন স্টোকস বলেছেন, দলের প্রতি প্রত্যেকেই দায়বদ্ধ। মোতেরায় শেষ টেস্টে ৪১ ডিগ্রি গরমের মধ্যে খেলতে হয়েছে সবাইকে। এই এক সপ্তাহে আমার ৫ কিলোগ্রাম ওজন কমেছে। সিবলির ও অ্যান্ডারসনের কমেছে যথাক্রমে ৪ ও ৩ কিলোগ্রাম করে। জ্যাক লিচকে তো বোলিং স্পেলের পরপরই ছুটতে হচ্ছিল টয়লেটে।

- Advertisement -

ইংল্যান্ড অলরাউন্ডার অবশ্য জানান, এটা হারের কোনও অজুহাত নয়। বলেন, কোনও অজুহাত দিচ্ছি না। ঋষভ পন্থ এবং ভারতীয় দল দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। তফাৎ গড়ে দিয়েছে। তবে ইংল্যান্ডের হয়ে যারা মরিয়া প্রয়াস চালিয়েছে, তাদেরও কুর্নিশ জানাই। স্টোকস নিজেও পেটের সমস্যা ভুগছিলেন। হারলেও, দলের স্বার্থে মাঠে নামেন এবং সিরিজে নিজের সেরা খেলা তুলে ধরেন এই ম্যাচে।

এদিকে, আইপিএল নিয়ে জিওফ বয়কট প্রশ্ন তুললেও, একেবারে ভীন্ন সুর স্যাম কুরানের। ইংল্যান্ড ক্রিকেটের তরুণ প্রজন্মের অন্যতম মুখ কুরানের মতে, আইপিএল তাঁকে পরিণত করেছে। টি২০ সিরিজের প্রাক্কালে চেন্নাই সুপার কিংসের অন্যতম সদস্যর যুক্তি, আইপিএল আমাকে সমৃদ্ধ করেছে। নিজেকে অনেক বেটার ক্রিকেটার মনে হয়েছে আইপিএলের পর। লিগে বিভিন্ন ধরনের দায়িত্ব সামলেছি। মুখোমুখি হয়েছে একাধিক চ্যালেঞ্জের। এরফলে উপকৃত হয়েছে আমার খেলা।

টি২০ বিশ্বকাপের আগে আইপিএল। কাপ-প্রস্তুতিতে যে সুযোগটা নিতে চান কুরান। বলেন, আইপিএল বিশ্বের এক নম্বর টি২০ প্রতিযোগিতা। প্রত্যেকেই মুখিয়ে থাকে। আর ক্রিকেটের জন্য ভারত অসাধারণ জায়গা। যেহেতু ভারতেই এবার টি২০ বিশ্বকাপ বসছে। ফলে আইপিএলে সেই প্রস্তুতি সেরে নেওয়ার সুযোগ থাকবে। আমি যার জন্য মুখিয়ে রয়েছি।