বাংলার গ্রিন জোনে বাস চলাচলের ‘গ্রিন সিগন্যাল’ দিল রাজ্য সরকার

1003

কলকাতা: লকডাউনের মধ্য়ে বাংলার গ্রিন জোন এলাকায় বেশ কিছু ছাড়ের কথা ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এইসব ছাড়ের কথা ঘোষণা করেন। তবে কনটেইনমেন্ট এলাকায় পুরোপুরি লকডাউন চলবে বলে জানান তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সোমবার থেকে গ্রিন জোনে জেলার মধ্যে ২০ জন যাত্রী নিয়ে বেসরকারি বাস চালানো যাবে। সেই বাস জেলার বাইরে যাবে না। বাসযাত্রীদের সবাইকে মাস্ক পরতে হবে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। প্রতিদিন বাস স্যানিটাইজ করতে হবে। তবে এক্ষেত্রে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতর থেকে অনুমতি নিতে হবে। এছাড়া কলকাতার গ্রিন ও অরেঞ্জ জোনে ট্যাক্সি পরিষেবা চালুর কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: জরুরি নয় এমন জিনিসপত্রও হোম ডেলিভারি করা যাবে: নবান্ন

দোকানপাট খোলার ক্ষেত্রেও কিছু ছাড়ের ঘোষণা করেছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, গ্রিন জোন এলাকায় স্বতন্ত্রভাবে যে দোকানগুলি আছে, সেগুলি খোলা যাবে। তবে মার্কেট কমপ্লেক্সের কোনও দোকান খোলা যাবে না। হকার্স কর্নার, হকার্স মার্কেট বা ফুটপাতের দোকানগুলির ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বলবত থাকছে। আপাতত এই দোকানগুলি খোলা যাবে না বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: যোগীর রাজ্যে ফের ধর্ষিতা দলিত কিশোরী

সেলুন ও বিউটি পার্লার খোলা যাবে না ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। স্টেশনারি ও বইয়ের দোকান, ইলেকট্রনিক্সের দোকান, মোবাইল রিচার্জ, লন্ড্রি, চা ও পানের দোকান খোলা যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে স্থানীয় প্রশাসনই ঠিক করবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় কোন কোন দোকান খোলা যাবে।

আরও পড়ুন: পণের টাকা না মেলায় স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা, গ্রেপ্তার স্বামী

মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, গ্রিন জোনে মাস্ক পরে ও সোশ্যাল ডিসট্যানসিং মেনে কিছু নির্মাণকাজ শুরু করা যাবে। গ্রিনজোনে কারখানাও খুলবে। রাজ্যের মানুষের কাছে আরও একবার মাস্ক পরার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী কথায়, ‘মাস্কটাকে আর একটা পোশাক ভেবে নিন।’