রাজ্যজুড়ে কঠোর বিধিনিষেধ, কড়া নজরদারিতে পুলিশ প্রশাসন

99

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: করোনা সংক্রমণ রুখতে আজ থেকে রাজ্য জুড়ে কঠোর বিধিনিষেধ চালু করেছে সরকার। আপাতত ১৫ দিনের জন্য কার্যত লকডাউন জারি থাকছে উত্তরবঙ্গ সহ গোটা রাজ্যে। আর এই বিধিনিষেধ সঠিকভাবে পালন করা হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে সকাল থেকে দার্জিলিং, কালিম্পং, শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, দুই দিনাজপুর এবং মালদার বিভিন্ন এলাকায় তৎপর ছিল প্রশাসন। রাস্তায় রাস্তায় চলছে নাকা চেকিং। বাইরে বের হলে দেখাতে হচ্ছে বৈধ কারণ।

বিধিনিষেধের পাশাপাশি মানুষ করোনাবিধি মানছেন কিনা, তা খতিয়ে দেখতে সকাল থেকে রাস্তায় নামেন শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনার। হাসমিচক থেকে শুরু করে শহরের মোড়ে মোড়ে নজরদারি চালায় পুলিশ। যদিও সকাল থেকে রাস্তায় তেমন কোনও যানবাহন লক্ষ্য করা যায়নি। দার্জিলিং ও কালিম্পংয়েও লকডাউন মেনেই চলেন পাহাড়বাসী। বিভিন্ন এলাকায় মোতায়েন ছিল পুলিশও।

- Advertisement -

উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের হাসপাতাল মোড়, বিদ্রোহী মোড়, ফোয়ারা মোড়, ঘড়ি মোড় সহ বিভিন্ন জায়গায় পুলিশে ছয়লাপ ছিল। বাইক, টোটো, গাড়িতে কাউকে দেখলে রীতিমতো দাঁড় করিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। যাঁরা বাইরে বেরোনোর বৈধ কারণ দেখাতে পারছেন না, তাঁদের তাদের পুলিশের তরফে গ্রেপ্তারের হুঁশিয়ারি দিয়ে বাড়ি ফেরত পাঠানো হয়।

রাজ্যজুড়ে কঠোর বিধিনিষেধ, কড়া নজরদারিতে পুলিশ প্রশাসন| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

তৎপর ছিল দক্ষিণ দিনাজপুর পুলিশও। প্রতিদিনের মতো পুলিশ এদিনও বুনিয়াদপুর সদর বাজার নির্ধারিত সময়ের পর বন্ধ করে দেয়। রাস্তায় নেমে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন মহকুমা ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মনোতোষ মণ্ডল। এছাড়াও অন্যত্রও কঠোরভাবে মানা হয় যাবতীয় বিধিনিষেধ। মালদার গাজলের যদিও বাজারে ক্রেতাদের ভিড় ছিল যথেষ্ট। মুখে মাস্ক থাকলেও শারীরিক দূরত্ব বিধি বজায় রাখা সম্ভব হয়নি অনেক এলাকাতেই। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে গত বছরের মতো এবারেও দৈনিক বাজার এবং মাছ বাজার কে গরু হাটে স্থানান্তরিত করার দাবি জানিয়েছেন ক্রেতারা।