কলকাতা, ২৪ অগাস্টঃ বেসরকারি বিজ্ঞাপনে মুখ দেখানো তেন্ডুলকারের ‘ভারতরত্ন’ নিয়ে মামলা হয় হাইকোর্টে। কলকাতা হাইকোর্টে শুক্রবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ  ভারতরত্ন নিয়ে জনস্বার্থ মামলাটি মামলাকারীকে প্রত্যাহার করে নিতে বলেন। তবে সুযোগ দেন বিষয়টি নিয়ে ফের মামলা করার।
কমল দে নামে জনৈক ব্যক্তি ভারতরত্ন নিয়ে জনস্বার্থ মামলা করেন প্রধান বিচারপতি জ্যোতির্ময় ভট্টাচার্য এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে। এদিন মামলার শুনানির সময় কমলের আইনজীবী শ্রীকান্ত দত্ত বলেন, ‘দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান হল ভারতরত্ন। এ পর্যন্ত ৪৫ জন ব্যক্তিত্বকে ভারতরত্ন সম্মানে ভূষিত করা হয়েছে যার মধ্যে ক্রিকেটার শচীন রয়েছেন। ভারতরত্ন সহ সরকারের দেওয়া একাধিক সম্মানে ভূষিত ৪৪ জন বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপন মুখ না দেখালেও শচীনকে দেখা যায়।’ সেটা কতটা যুক্তিযুক্ত এই প্রশ্ন তোলেন তিনি। শ্রীকান্তবাবু দাবি করেন, এরজন্য প্রয়োজন রয়েছে একটি গাইডলাইনের।
কিন্তু যেহেতু এই মামলায় পক্ষে থাকা সকলেরই কার্যালয় দিল্লিতে এবং শচীনও এরাজ্যের বাসিন্দা নন, তাই মামলাকারী কমল দে-কে কোর্ট সুযোগ দেয় দিল্লি হাইকোর্ট বা সুপ্রিমকোর্টে গিয়ে মামলা করার। তখন মামলাকারীর আইনজীবী মামলাটি প্রত্যাহার করে নেন।

ছবিঃ সংগৃহীত