ভুটান গেট বন্ধ, জয়গাঁয় জ্বালানি তেলের সংকট

811

সমীর দাস, জয়গাঁ :  আলিপুরদুয়ার জেলার ভুটান সীমান্তবর্তী শহর জয়গাঁয় জ্বালানি তেলের চরম সংকট দেখা দিয়েছে। করোনা পরিস্থিতির আগে পর্যন্ত জয়গাঁর বাসিন্দাদের জ্বালানি তেলের জোগান ছিল ভুটানের ফুন্টশোলিং শহর। দুই দেশের মধ্যে জ্বালানি তেলের দামে এতটাই তফাত ছিল যে, জয়গাঁর প্রায় ১০০ শতাংশ মানুষ ফুন্টশোলিংয়ের বিভিন্ন পেট্রোল পাম্পে গিয়ে পেট্রোল, ডিজেল কিনতেন। এর ফলে জয়গাঁয় তেল বিক্রি প্রায় হত না বললেই চলে। দারাগাঁওতে একমাত্র পেট্রোল পাম্প রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে ওই পাম্পটি লোকসানে চলতে থাকায় পেট্রোল পাম্প কর্তৃপক্ষ এক সময় তা বন্ধ করে দেয়। কিন্তু করোনা মহামারির ফলে পরিস্থিতি বদলে গিয়েছে। প্রায় ১০ মাস ধরে ভুটান গেট বন্ধ থাকায় জয়গাঁর বাসিন্দারা ভুটানে গিয়ে জ্বালানি তেল সংগ্রহ করতে পারছেন না। এর ফলে জয়গাঁর বাসিন্দারা জ্বালানি তেলের সমস্যায় ভুগছেন। জয়গাঁ থেকে হাসিমারার দূরত্ব প্রায় ১৬ কিলোমিটার। এত দীর্ঘ পথ পেরিয়ে জ্বালানি তেল সংগ্রহ করতে গিয়ে হয়রানির মুখে পড়ছেন বাসিন্দারা। ভারতের তুলনায় ভুটানের পেট্রোল, ডিজেলের দামের বিস্তর ফারাকের কারণে জয়গাঁ ছাড়াও ডুয়ার্সের বিভিন্ন প্রান্তের পরিবহণ ব্যবসায়ীরা জয়গাঁয় এলেই ভুটানের পেট্রোল, ডিজেল কিনতেন। ভুটানে লিটার পিছু পেট্রোলে ৩০ টাকা কম এবং ডিজেল ২০ টাকা কম। এর ফলে শুধু পরিবহণ ব্যবসায়ীরা নয়, ভুটানের তেলকে কেন্দ্র করে ডুয়ার্সজুড়ে শুরু হয় জ্বালানি তেলের অবৈধ ব্যবসা। খোলা বাজারে পেট্রোল, ডিজেলের রমরমা বাজার শুরু হয় জয়গাঁ সহ আলিপুরদুয়ার জেলার বিভিন্ন প্রান্তে। কয়েকদিন আগেই জয়গাঁয় এই ধরনের এক তেলের অবৈধ কারবারির দোকানে আগুন লেগে ওই দোকানে এক কিশোরীর আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয়। এতে তেলের অবৈধ ব্যবসাও এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। আর তাতে আরও সমস্যায় পড়েছেন ক্রেতারা। জয়গাঁ থেকে হাসিমারার দূরত্বের কারণে অনেকেই জ্বালানি তেল সংগ্রহ করতে সমস্যায় পড়েছেন। তেলের সমস্যা দূর করতে প্রশাসনিক উদ্যোগের দাবি তুলতে শুরু করেছেন বাসিন্দারা।

অন্যদিকে, ভুটানের তেল যেহেতু এতদিন জয়গাঁবাসীর কাছে সহজলভ্য ছিল তাই জয়গাঁয় পেট্রোল পাম্প খোলা নিয়ে এতদিন কোনও ব্যবসায়ী আগ্রহ দেখাননি। ভুটান গেট একবার খুলে গেলে জয়গাঁয় পেট্রোল পাম্প ফের বন্ধ হয়ে যেতে পারে, সেই কারণে জয়গাঁর কোনও ব্যবসায়ী পেট্রোল পাম্পে লগ্নি করতে রাজি হচ্ছেন না বলে স্থানীয় ব্যবসায়ী সমিতি সূত্রে জানা গিয়েছে। জয়গাঁ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রামাশংকর গুপ্তা বলেন, ভুটান গেট বন্ধ থাকায় জয়গাঁর বাসিন্দারা জ্বালানি তেলের সংকটে পড়েছেন। সমস্যার সমাধানে ভারত-ভুটান সীমান্ত টাস্ক ফোর্সের হস্তক্ষেপ ও বিকল্প ব্যবস্থার দাবি করেছেন তিনি।

- Advertisement -