অতি বৃষ্টিতে জলমগ্ন ভুটান রোড, গর্তে পড়ে টোটো উলটে দুর্ঘটনা

383

রামকৃষ্ণ বর্মন, জামালদহ: একে বেহাল রাস্তা। তার উপর লাগাতার বৃষ্টি চলছে। ফলে রাস্তাজুড়ে জল থই থই। জলের তলায় ডুবে যাওয়া রাস্তায় কোথাও কোনও গর্ত রয়েছে কিনা তা বিন্দুমাত্র বোঝার জো নেই। মঙ্গলবার সকালে হাটে আসার সময় কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ ব্লকের জামালদহ বাজারের ভুটান রোডে উলটে গেল পাট বোঝাই একটি টোটো। দুর্ঘটনায় আহত হন টোটোর চালক ও যাত্রী সহ তিনজন।

এদিন সকালে লাগাতার বৃষ্টির জেরে জলমগ্ন হয়ে পড়ে রাস্তাটি। আর জলে থই থই রাস্তার গর্তে হোঁচট খেয়ে উলটে যায় মাল বোঝাই টোটোটি। দুর্ঘটনায় আহতদের জামালদহ প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। বৃষ্টিতে রাস্তার গর্ত জলে ডুবে যাওয়ায় এর আগেও টোটো উলটে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এতে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে টোটোর যন্ত্রাংশ। গুঁড়িয়ে যাচ্ছে টোটোয় থাকা মালপত্র। এইসব ঘটনা নিয়ে ব্যাপক ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েছেন জামালদহের বাসিন্দারা।

- Advertisement -

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এটা শুধু আজকের সমস্যা নয়। এভাবে মাঝে মধ্যেই টোটো কিংবা অন্যান্য যানবাহন দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে। তবুও পঞ্চায়েত ও প্রশাসনের কোনও হুঁশ ফিরছে না। বেহাল রাস্তা সারাই কিংবা রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা জল নিষ্কাশনের কোনও ব্যবস্থা হয়নি। খারাপ রাস্তা সংস্কার করার জন্য পঞ্চায়েত, প্রশাসন, নেতা, জনপ্রতিনিধি কারোরই বিন্দুমাত্র কোনও আগ্রহ না থাকায় চরম ক্ষুব্ধ এলাকার বাসিন্দারা। তাঁরা জানিয়েছেন, কয়েক পশলা বৃষ্টি হলেই জল থই থই করে জামালদহ বাজারের গুরুত্বপূর্ণ ভুটান রোড। সেখানে কয়েকদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টি হচ্ছে। ফলে অবস্থা আরও দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরেই জল নিকাশি সমস্যায় ভুগছেন এলাকার মানুষ। জল নিষ্কাশন ব্যবস্থা মুখ থুবড়ে পড়ায় সামান্য বৃষ্টিতেই জল জমে নরককুন্ড হয়ে উঠছে ভুটান রোড সহ বাজার চত্বর। এই নিয়ে বিস্তর ক্ষোভ দেখা দিয়েছে এলাকায়। তবুও বেহাল পথ মেরামতি কিংবা নিকাশি ব্যবস্থার উন্নতি কোনওটাই হচ্ছে না। এর জন্য পঞ্চায়েত ও প্রশাসনের উদাসীনতাকেই দায়ী করছেন এলাকার মানুষ।

সপ্তাহে দু’দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার ও শুক্রবার জামালদহে হাট বসে। হাটবারে কয়েক হাজার লোকের সমাগম হয়। কিন্তু হাটে এসে কমবেশি সকলেই চরম বিরক্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়ছেন। এই বিষয়ে জামালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান গীতা বর্মন শুধু আশ্বাস দিয়েই চলেছেন বলে অভিযোগ। তবে গীতাদেবী বলেন, ‘বেহাল রাস্তা ও নিকাশির বিষয়টি উপরমহলের নজরে আনা হয়েছে। তাঁরা কিছু না করলে গ্রাম পঞ্চায়েতের সীমিত ক্ষমতায় কিছু করার নেই।’ স্থানীয় বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধানও জামালদহের ভুটান রোডের সমস্যা নিরসনে একাধিকবার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন। কিন্তু বাস্তবে কিছুই হয়নি। বিধায়কের বক্তব্য, ‘জামালদহ বাজারের উন্নতির ব্যাপারে পরিকল্পনা চলছে।’ যদিও এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি মেখলিগঞ্জ ব্লকের বিডিও সাঙ্গে ইউডেন ভুটিয়া।