বর্ধিত মজুরি পাচ্ছেন না বিড়ি শ্রমিকরা, সরব আইএনটিটিইউসি

82

রায়গঞ্জ: চুক্তি মতো মজুরি দিচ্ছেন না বিড়ি কারখানার মালিকরা শুক্রবার রায়গঞ্জে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে আইএনটিটিইউসি-র জেলা সভাপতি শেখর দাস বলেন, ‘গত ২৫ অক্টোবর থেকে ১৭৮ টাকা হারে মজুরি নির্ধারিত করেছে রাজ্য সরকার। আগে মজুরি ছিল ১৫২ টাকা। ২৬ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। কিন্তু জেলার ১০৯ জন বিড়ি কোম্পানির মালিক বর্ধিত হারে মজুরি দিচ্ছেন না।‘

যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন মালিকপক্ষ। তাদের দাবি, গত ২৫ অক্টোবর থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বর্ধিত হারে মজুরি ১৫ ও ১৬ নভেম্বর মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। আগামী সপ্তাহে ১ থেকে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত মজুরি দিয়ে দেওয়া হবে। আজ পর্যন্ত কোনও শ্রমিক এমন অভিযোগ আমাদের কাছে করেনি। যদিও শেখর দাসের আরও দাবি, শ্রমিকরা প্রতিবাদ করলে কাজ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। মালিকদের বিরুদ্ধে শ্রম কমিশনারের কাছেও দরবার করার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

- Advertisement -

সিটুর জেলা সভাপতি পরিতোষ দেবনাথ বলেন, ‘২০১৭ সালের ডিসেম্বরে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হয় বিড়ি মালিক সংগঠনের সঙ্গে শ্রমিক সংগঠনগুলির। প্রতি হাজার বিড়ি বাঁধার জন্য ১৫২ টাকা মজুরি ধার্য হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে ১১০ থেকে ১২০ টাকা দেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্র, রাজ্য কেউ মাথা ঘামাচ্ছে না। বহু শ্রমিককে পরিচয়পত্র, পিএফের সুবিধা দেওয়া হচ্ছে না।‘ বিড়ি মালিকদের তরফে মহম্মদ সাহাবুদ্দিন বলেন, ‘আমরা বর্ধিত হারে শ্রমিকদের মজুরি দিচ্ছি। তারা কেন এমন অভিযোগ করছে বুঝতে পারছি না। ইসলামপুর অ্যাসিট্যান্ট লেবার কমিশনারের সঙ্গে দেখা করে জানিয়ে এসেছি। ব্যবসা ভাল না হওয়ায় ধাপে ধাপে বর্ধিত হারে মজুরি দেওয়া হচ্ছে।‘