মোট নম্বরের চেয়ে বেশি নম্বর, সম্ভব একমাত্র বিহারেই

154

পাটনা, ৯ জুনঃ দ্বাদশ শ্রেণীর ‘অদ্ভূতুড়ে’ রেজাল্টের জেরে আরও একবার খবরের শিরোনামে বিহার বোর্ড। মোট নম্বরের থেকেও বেশি স্কোর এসেছে অনেক ছাত্র-ছাত্রীরই। এমনকি যে সব বিষয়ে পরীক্ষাই দেয়নি, সেই বিষয়েও নম্বর পেয়েছে অনেক পড়ুয়া।

বিহারের আরওয়াল জেলা থেকে এবার দ্বাদশ শ্রেণীর পরীক্ষা দিয়েছিল ভীম কুমার নামে এক ছাত্র। অঙ্কের থিওরি পেপারে মোট পরীক্ষা হয় ৩৫ নম্বরের। সেখানে ভীম পেয়েছে ৩৮। অবজেক্টিভ প্রশ্নে ৩৫ নম্বরের পরীক্ষায় তার প্রাপ্ত নম্বর ৩৭। এমন নম্বর পাওয়ার পরে সে জানিয়েছে, ‘বিহার বোর্ডে বহুদিন ধরেই এমন ঘটনা ঘটে চলেছে। এতে অবাক নই আমি।’
একইভাবে পূর্ব চম্পারণের ছাত্র সন্দীপ রাজ ফিজিক্সের থিওরি পেপারে মোট ৩৫ নম্বরের পরীক্ষায় পেয়েছে ৩৮। আবার ইংরাজি ও হিন্দির অবজেক্টিভ প্রশ্নে ভালো পরীক্ষা দিয়েও সে শূন্য পেয়েছে বলে জানিয়েছে। অঙ্কের অবজেক্টিভ পেপারে ৩৫-এর মধ্যে ৪০ পেয়েছে দ্বারভাঙার রাহুল কুমার।
বৈশালীর বাসিন্দা জাহ্নবী সিং এর কথায়, সে বায়োলজি পরীক্ষা দেয়নি। তবে সে বায়োলজিতে পেয়েছে ১৮। পাটনার সত্য কুমারও নম্বর পেয়েছে সেই বিষয়ে যে বিষয়ে সে পরীক্ষাই দেয়নি।

- Advertisement -

চলতি বছরে বিহার বোর্ডের ইন্টারমিডিয়েট পরীক্ষায় ১১ লক্ষ পড়ুয়া পরীক্ষা দিয়েছে। ৫৩ শতাংশ পরীক্ষায় পাস করেছে।

পাশাপাশি পরীক্ষা চলাকালীন নকল করার অভিযোগে ১০০০ জনের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছিল।