বিধানসভা ভোটে ছেলেকে পাহাড়ে প্রার্থী করতে চান বিমল

172

শিলিগুড়ি : নিজের নাম ভোটার তালিকায় না থাকায় নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তাই দার্জিলিং বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ছেলেকে প্রার্থী করতে চান বিমল গুরুং। দার্জিলিং বিধানসভা কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থিত গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা প্রার্থী দেবে এটা একপ্রকার নিশ্চিত। এমনকি দার্জিলিং কেন্দ্রে বিমলপন্থীরা প্রার্থী দেবেন সেটাও নিশ্চিত করে ফেলেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। কিন্তু কে প্রার্থী হবেন তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনার শেষ নেই। তবে বিমল শিবির সূত্রের খবর, এবার রাজনীতিতে পা রাখছেন বিমল-পুত্র অবিনাশ গুরুং।  বিধানসভা নির্বাচনে দার্জিলিং কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে তিনিই এগিয়ে।

২০০৭ সালে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার আত্মপ্রকাশের পর থেকে  ১০ বছর বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে চলেছে মোর্চা। বিজেপিকে তিনটি লোকসভা ভোটে লক্ষ লক্ষ ভোটে জেতানোর পাশাপাশি বিধানসভা ভোটেও পাহাড়ের তিনটি আসনেই নির্দল হিসাবে জয়ী হয়ে বিজেপিকেই সমর্থন করেছে বিমল গুরুংয়ের মোর্চা। কিন্তু বারবার আশ্বাস, প্রতিশ্রুতি দিয়ে পাহাড় সমস্যার স্থায়ী সমাধান নিয়ে কোনও পদক্ষেপই করেনি বিজেপি। এমনকি দেশদ্রোহিতা, খুন সহ প্রচুর মামলায় ফেঁসে বিমল গুরুংরা সাড়ে তিন বছর পালিয়ে থাকলেও সেই মামলাগুলি থেকে কীভাবে রেহাই দেওয়া যায় সেই উদ্যোগও নেয়নি বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়ে তৃণমূল শিবিরে ভিড়েছেন বিমল। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে পাহাড়ের তিনটি আসনের মধ্যে ২-১ এই ছকেই প্রার্থী দেবে বিনয় তামাং এবং বিমল গুরুং শিবির। তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশ দার্জিলিং থেকে বিমল গুরুং এবং কার্সিয়াং ও কালিম্পং বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিনয়রা প্রার্থী দেবেন বলে প্রাথমিকভাবে স্থির হয়েছে। কাজেই দার্জিলিং থেকে বিমল কাকে প্রার্থী করবেন তা নিয়ে জল্পনা শুরু। কেননা, তাঁর শিবিরের বহু নেতা-নেত্রীর বিরুদ্ধেই অনেক মামলা ঝুলছে। অনেকেই পুলিশের খাতায় ওয়ান্টেড। কাজেই নির্বাচন কমিশনের তোপে পড়ার আগেই সতর্ক হতে চাইছেন বিমল। এমন কাউকে তিনি দার্জিলিং বিধানসভা থেকে প্রার্থী করতে চাইছেন, যাঁর বিরুদ্ধে তেমন কোনও মামলা-মোকদ্দমা বা অভিযোগ নেই। আর এই জায়গাতেই নিজের ছেলে অবিনাশকে তুলে ধরছেন বিমল। ২০০৭ সাল থেকে পাহাড়ের রাজনীতিতে তাঁর একক আধিপত্য থাকলেও নিজের ছেলেকে কোনওদিনই সেই মঞ্চে নিয়ে আসেননি বিমল। স্ত্রী আশা গুরুংকে নিয়ে বিমল রাজনীতি করতেন, মেয়ে বিদেশে পড়াশোনা এবং ছেলে দার্জিলিংয়ের মাউন্ট হারমন স্কুলের ছাত্র। মাঝে একটি নেপালি চলচ্চিত্রে অভিনয়ও করেছিলেন অবিনাশ। কিন্তু তাঁকে কোনওদিনই রাজনীতিতে দেখা যায়নি। ২০১৭ সালের অগাস্ট মাসে বিমল পালিয়ে গেলে সঙ্গে স্ত্রী এবং ছেলেও আত্মগোপন করেছিলেন। সাড়ে তিন বছর এভাবে থাকার পর বিমল ফের প্রকাশ্যে। আর শিলিগুড়িতে ৬ ডিসেম্বর জনসভা মঞ্চে প্রথমবার ছেলেকে বাবার পাশে দেখা গিয়েছিল। তার পর থেকে তিনি যেখানেই জনসভা করছেন, প্রচারে যাচ্ছেন ছেলে অবিনাশ তাঁর ছায়াসঙ্গী হয়ে ঘুরছেন।

- Advertisement -

মোর্চা সূত্রের খবর, বিমল আগামী বিধানসভা ভোটে অবিনাশকে দার্জিলিং আসনে প্রার্থী করতে চান। সস্ত্রীক তাঁর নাম ভোটার তালিকা থেকে বাদ দিয়েছে প্রশাসন। তাঁর নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কিন্তু ছেলের নামে কোনও মামলা দূরের কথা থানায় লিখিত কোনও অভিযোগও নেই। তাই ছেলেকে ভোটে দাঁড় করিয়ে মানুষের রায় নিতে চাইছেন বিমল। এর পাশাপাশি পিটি ওলা এবং বিমলপন্থী মোর্চার কার্যনির্বাহী সভাপতি লোপসাং লামার (ইয়লমো) নামও প্রার্থীতালিকায় রয়েছে।