বালিয়াদিঘিতে দেখা নেই পাখির, হতাশ পরিবেশপ্রেমীরা

61

রায়গঞ্জ: পরিযায়ী পাখির দেখা নেই উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ বালিয়াদিঘিতে। পাখিরা না আসায় কার্যত হতাশ পরিবেশপ্রেমী থেকে শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দারা। পরিবেশপ্রেমীদের কেউ এই ঘটনার জন্য বিশ্ব উষ্ণায়ন, কেউ বা পরিযায়ী পাখিদের নিরাপত্তার অভাবকেই দায়ী করছেন।

বালিয়াদিঘিতে দীর্ঘদিন ধরে পরিযায়ী পাখিরা আসছে। এছাড়াও ওই দিঘি ঘিরে রয়েছে এক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন, যা পর্যটক মহলে বিখ্যাত। পরিযায়ী পাখি এবার না আসায় হতাশ স্থানীয় বাসিন্দারাও। স্থানীয় বাসিন্দা মোজাম্মেল হক জানান, প্রতিবছর এই বালিয়াদিঘির পাড়ে নানা প্রজাতির পাখি এলে বেশ ভালো লাগে। কিন্তু এবার তা নেই। প্রকৃতি ও পরিবেশপ্রেমিকদের আশঙ্কা আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনা, বিশ্ব উষ্ণায়নের দাপটে, নিরাপত্তার অভাব বোধ করে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে পরিযায়ী পাখিরা।

- Advertisement -

উত্তর দিনাজপুর জেলার পরিবেশবিদ তথা হাতিয়া হাইস্কুলের শিক্ষক মিঠু মল্লিক জানান, সাধারণ মানুষের আনন্দ উপভোগ করার জায়গা বালিয়াদিঘিতে বর্ষায় অতিথি পাখিরা আসা যাওয়া করে আসছে বহু বছর ধরে। কিন্তু এবার বর্ষা শুরু হলেও এখনও অতিথি পাখিরা আসেনি। মে মাস শেষ হয়ে গেলেও দেখা নেই তাদের।

স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক রেজাউল ইসলাম জানান, বালিয়াদিঘি ব্রিটিশ আমল থেকে নাম করা। দিঘির পাশে রয়েছে প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন। এই দিঘি ঘিরেই তৈরি দোকানপাট, বাজার। উত্তর দিনাজপুরের পরিবেশপ্রেমী তথা করোনেশন হাইস্কুলের ভূগোলের শিক্ষক সঞ্জিত গোস্বামী জানান, বিশ্ব উষ্ণায়নের পাশাপাশি বন্যপ্রাণ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যেও সচেতনতার অভাব রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে চোরাশিকারিদের দাপট। সেকারণে বালিয়াদিঘিতে পরিযায়ী পাখি আসা অনেকটাই কমে গিয়েছে।