থানার সামনে চা পাতা ফেলে বিক্ষোভ শ্রমিক-কর্মচারীদের

101

বীরপাড়া: গত ১৬ ফেব্রুয়ারি খুলেছে আলিপুরদুয়ার জেলার অচল বীরপাড়া চা বাগানটি। ডানকান টি কোম্পানির ওই চা বাগানটি পরিচালনার দায়িত্ব নিয়েছে মেরিকো টি কোম্পানি। তবে বাগানের মালিকপক্ষ বদল হলেও তা মানতে রাজি নন ওই চা বাগানের জটেশ্বর ডিভিশনের শ্রমিক-কর্মচারীরা। তাঁদের বক্তব্য, বাগানের মালিকানা হাতবদল হওয়ার কোনও বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারছে না নয়া মালিকপক্ষ। এদিকে, ওই চা বাগান খুলে যাওয়ায় ওই চা বাগানের শ্রমিক-কর্মচারীদের চা পাতা বিক্রি করতে দিচ্ছে না পুলিশ।

প্রসঙ্গত, বাগানটি অচল থাকার সময় চা বাগানের শ্রমিক-কর্মচারীরা কমিটি গড়ে চা পাতা বিক্রি করতেন। মঙ্গলবার জটেশ্বর ডিভিশনে চা পাতা তোলার পর তা বিক্রি করতে বাধা দেয় পুলিশ। চা পাতা বিক্রির উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়ার জন্য আনা তিনটি গাড়িও বাজেয়াপ্ত করা হয় বলে পুলিশ সূত্রের খবর। এরপর জটেশ্বর ডিভিশনের শ্রমিক-কর্মচারীরা প্রায় ২৫০০ কেজি চা পাতা নিয়ে এসে বীরপাড়া থানার সামলে ফেলে দিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। পুলিশের মাধ্যমে আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসকের কাছে একটি দাবিপত্রও পাঠান তাঁরা।

- Advertisement -

বীরপাড়া থানার তরফে জানানো হয়েছে, সোমবার চা বাগানের নয়া মালিকপক্ষ জটেশ্বর ডিভিশনে বেআইনিভাবে চা পাতা তুলে বিক্রি করার অভিযোগ দায়ের করে বীরপাড়া থানায়। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ একটি মামলা রুজু করেছে। এদিকে, জটেশ্বর ডিভিশনের শ্রমিক-কর্মচারীদের বক্তব্য, মালিকানা বদলের চুক্তিপত্র না পেলে তাঁরা নয়া মালিককে মানবেন না। কারণ, হঠাৎ করে নয়া মালিকপক্ষ বাগান ছেড়ে চলে গেলে শ্রমিক-কর্মচারীদের বিপাকে পড়তে হবে।

প্রসঙ্গত, বীরপাড়া চা বাগানের জটেশ্বর ডিভিশনে ৮০০-র বেশি শ্রমিক-কর্মচারী রয়েছেন। বীরপাড়ার অ্যাসিস্ট্যান্ট লেবার কমিশনার নীল ছেত্রী জানান, ওই চা বাগানটি খুলে গিয়েছে। মঙ্গলবারের ঘটনাকে আইনশৃঙ্খলার সমস্যা হিসেবে অভিহিত করেন তিনি। মেরিকো টি কোম্পানির ডিরেক্টর সুরজিৎ বকসির অভিযোগ, ব্যক্তিগত স্বার্থে কয়েকজন লোক শ্রমিকদের ভুল পথে পরিচালিত করছেন।