তৃণমূলের ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছেঁড়ার অভিযোগে বিদ্ধ বিজেপি

64

গাজোল: তৃণমূলের ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছেঁড়ার ঘটনায় তেত উঠল মালদা জেলার গোজোল। ঘটনায় অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। অভিযোগ, গতকাল রাতে গাজোল-২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের পাঁচপাড়া এলাকায় তৃণমূলের দলীয় পতাকা এবং ফেস্টুন খুলে জঙ্গলে ফেলে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে ফতেপুর এবং চৌরঙ্গী মোড় এলাকায় পতাকা এবং ফেস্টুন ছেঁড়ার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনার প্রেক্ষিতে তৃণমূলের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে গাজোল থানায়। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছেঁড়ার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন গাজোল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মানিক প্রসাদ। তিনি বলেন, ‘গাজোলের একটি রাজনৈতিক শিষ্টাচার আছে। আমরা সেই শিষ্টাচার মেনে চলি। কিন্তু গত পঞ্চায়েত এবং লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি একটু ভালো ফলাফল করার পর থেকেই তারা সেই শিষ্টাচার মেনে চলছে না। যে সমস্ত এলাকায় একটু বেশি ভোট পেয়েছিল সেই সমস্ত এলাক নিজেদের দখলে রাখতে সন্ত্রাস তৈরি করছে। কিন্তু বিজেপির কাছ থেকে মানুষ যে সরে গিয়েছে তা গতকালের জনসভায় স্পষ্ট। তাই বিভিন্ন এলাকায় গন্ডগোল সৃষ্টি করছে বিজেপি। শুধু এই এলাকাতেই নয় গাজোলের বিভিন্ন এলাকায় একই ঘটনা ঘটাচ্ছে বিজেপি। ঘটনার প্রেক্ষিতে থানায় অভিযোগ দায়েরের পাশাপাশি এমসিসি সেল এবং বিডিওকেও জানানো হয়েছে। প্রশাসন যদি সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাহলে রাস্তায় নামতে বাধ্য হবো আমরা।’

- Advertisement -

তৃণমূলের তরফে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপির যুব নেতা নিহার রঞ্জন মণ্ডল জানান, ‘বিজেপি এই ধরনের কাজের সাথে যুক্ত থাকে না। বরং গোটা মালদা জেলাতে তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরে যাওয়ায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করতে চাইছে। তিনি আরও বলেন, ‘গতকাল আমাদের মালদা বিধানসভার প্রার্থী গোপালচন্দ্র সাহাকে গুলি করা হয়েছে। কিন্তু এভাবে সন্ত্রাস ছড়িয়েও লাভ হবে না তৃণমূলের। গোটা জেলার পাশাপাশি গাজোল বিধানসভা কেন্দ্রেও জয়ী হবে বিজেপি।’