তৃণমূলের দলীয় পতাকা পোড়ানোর অভিযোগে বিজেপি কর্মীকে মারধর, চাঞ্চল্য

105

আলিপুরদুয়ার: বিধানসভা ভোটের মুখে শাসক ও বিরোধী দলের রাজনৈতিক তরজা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। আলিপুরদুয়ারে এতদিন পর্যন্ত রাজনৈতিক বিরোধ বাকবিতণ্ডার পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকলেও বৃহস্পতিবার তা মারধর পর্যন্ত গড়াল বলে অভিযোগ। জংশন ডি এস কলোনি এলাকায় তৃণমূলের দলীয় পতাকা পোড়ানোর অভিযোগ তুলে একজন বিজেপি কর্মীকে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এদিনের ঘটনায় বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস একে অপরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। জংশন চেঁচাখাতা মোর ডি এস কলোনি এলাকার ঘটনা। তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার রাতে দলীয় পতাকা পোড়ানোর অভিযোগ করা হয় এবং সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এদিন ১১টা নাগাদ মাঝের ডাবরি এলাকার বাসিন্দা বিজেপি কর্মী বিকাশ দেবনাথকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। পেশায় টোটো চালক বিকাশ দেবনাথ টোটো চালিয়ে জংশন ডি এস কলোনি এলাকায় যাওয়ার সময় এই ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ। তৃণমূল কংগ্রেসের স্থানীয় নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীকে মারধরের অভিযোগ করা হলেও তৃণমূল কংগ্রেস পক্ষ থেকে অস্বীকার করা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ দলীয় পতাকা পোড়ানোর মতো ঘটনা ঢাকতে বিজেপি মিথ্যা অভিযোগ করছে। বিজেপির পালটা অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস নিজেদের দলীয় পতাকা নিজেরাই পুড়িয়ে বিজেপির উপর দোষ চাপাচ্ছে।

আহত বিজেপি কর্মী বিকাশ দেবনাথ বলেন, ‘আমি মাঝের ডাবরি এলাকার বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার ১১ টা নাগাদ জংশন ডি এস কলোনি চেচাখাতা মোর দিয়ে যাওয়ার সময় তৃণমূল কংগ্রেসের ১০ থেকে ১৫জন কর্মী আমাকে মারধর করে।পরে আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং এই বিষয়ে আলিপুরদুয়ার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি।’

- Advertisement -

জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক তপেন কর বলেন, ‘কোনো মারধরের কোনো ঘটনাই ঘটেনি। বিজেপি পরিকল্পনা মাফিক মিথ্যা অপপ্রচার করছে। আমাদের বুথে বুথে দলীয় পতাকা লাগানোর কর্মসূচি চলছে। কিন্তু গতকাল রাতে আমাদের দলীয় পতাকা পোড়ানো হয়েছে ।তার প্রতিবাদে আমরা অবস্থান বিক্ষোভ করি।’

বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক সুমন কাঞ্জিলাল বলেন, ‘দলীয় পতাকা পোড়ানোর সঙ্গে কোনো বিজেপি কর্মী যুক্ত নয়। তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্যরা নিজেদের দলীয় পতাকা নিজেরাই পুড়িয়ে বিজেপির উপর দোষ চাপিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চাইছে। আসলে ওই এলাকায় কিছু স্থানীয় নেতা সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি করে ভোট বৈতরণী পার করতে চাইছে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস তা পারবে না।’