প্রচারে এসে পরস্পরকে দেখে জড়িয়ে ধরলেন বিজেপি ও তৃণমূল প্রার্থী

199

ফুলবাড়ি: মাথাভাঙ্গা বিধানসভা কেন্দ্রে এবারের নির্বাচনের লড়াইয়ের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের দুই প্রতিপক্ষ তথা রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী গিরীন্দ্রনাথ বর্মন ও প্রধান বিরোধী দল বিজেপি প্রার্থী সুশীল বর্মন বুধবার নিজেদের প্রচারে এসে ফুলবাড়ি পুরানো বাজারে কোলাকুলি করেন। ঘটনার সাক্ষী থাকেন দুই রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মী সহ বাজারের ব্যবসায়ী ও সাধারন মানুষ।

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন দলের প্রার্থী সুশীল বর্মন ফুলবাড়ির মোরঙ্গা বাজার, ক্ষেতি বাজার, নবগঞ্জ বাজার ও ফুলবাড়ি পুরানো বাজার সহ বিভিন্ন এলাকায় মন্দিরে পুজো দিয়ে জনসংযোগের মাধ্যমে নিজের প্রচার করেন। এদিন বিজেপি প্রার্থীর সঙ্গে ছিলেন বিজেপির জেলা পরিষদ ৫ নম্বর মণ্ডলের সভাপতি বিশ্বরূপ রায়, সহ সভাপতি মলিন রায়, সম্পাদক রমেন বর্মন, সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত বর্মন সহ স্থানীয় বিজেপি নেতারা।

- Advertisement -

এদিকে, এদিন ফুলবাড়িতে প্রচারে আসেন মাথাভাঙ্গা বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী গিরীন্দ্রনাথ বর্মন। দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গিরীন্দ্রনাথ বর্মন এদিন ফুলবাড়ির বিভিন্ন বুথে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করে নিজের প্রচার করেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মাথাভাঙ্গা -২ ব্লক কমিটির সভাপতি হরিপদ মিত্র, সহ-সভাপতি সাবলু বর্মন সহ স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা।

এদিন বিজেপি প্রার্থী সুশীল বর্মন তপসিতলায় মন্দিরে পুজো দিয়ে জনসংযোগ করে নিজের গাড়িতে বাজার হয়ে পূর্ব ফুলবাড়ি কালী মন্দিরে পুজো দিতে যাচ্ছিলেন। অপরদিকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী  গিরীন্দ্রনাথ বর্মন কৃষ্ণ গোপাল গীতা ভবন আশ্রমে পুজো দিয়ে কর্মীসভা করে গাড়িতে ফিরছিলেন। ফুলবাড়ি পুরোনো বাজারে দুই প্রধান প্রতিপক্ষ প্রার্থীর গাড়ি মুখোমুখি দাঁড়িয়ে যায়। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী গিরীন্দ্রনাথ বর্মন গাড়ি থেকে নেমে বিজেপি প্রার্থী সুশীল বর্মনের গাড়ির দিকে এগিয়ে যান। সুশীল বর্মন গাড়ি থেকে বেরিয়ে এলে দুজনের মধ্যে কোলাকুলি হয়। ঘটনার সাক্ষী থাকেন দুই রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী বাজারের ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ।

তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী গিরীন্দ্রনাথ বর্মন বলেন, এটা সম্পূর্ণ সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ। প্রচারে এসে বিরোধী দলের প্রার্থীর দেখা হয়েছে। কোলাকুলি হয়েছে। কুশল বিনিময় হয়েছে। তিনি বলেন, ‘রাজনীতির মাধ্যমে যাতে মানুষের বিভেদ সৃষ্টি না হয়। সেইসঙ্গে রাজনৈতিক দলের প্রার্থী ও কর্মীদের মধ্যে কোন বিরোধ যাতে তৈরি না হয়। সেই বার্তা দিতেই এদিনের এই সাক্ষাৎ। বিষয়টি দেখে উগ্র রাজনীতিবিদরা শিক্ষা নিক।’ তিনি বলেন, ‘সুশীলবাবু আমার দীর্ঘদিনের পরিচিত লোক।’

বিজেপি প্রার্থী সুশীল বর্মন বলেন, ‘প্রচার করতে এসে ফুলবাড়ি পুরানো বাজারে আমার গাড়ির সামনে গিরীন্দ্রনাথ বর্মনের গাড়ি দাঁড়িয়ে পড়ে। গিরীন্দ্রনাথ বর্মন গাড়ি থেকে বেরিয়ে এসে আমার গাড়ির দরজার কাছে দাঁড়ায়। আমি বাইরে বেরিয়ে আসি। দুজনের মধ্যে কুশল বিনিময় হয়েছে। উনি একরকম জোর করেই আমার সঙ্গে কোলাকুলি করেন।’ সুশীলবাবু বলেন, ‘গিরীন্দ্রনাথবাবুর সঙ্গে আগে থেকেই পরিচয় আছে। কিন্তু তিনি তখন একরকম মানুষ ছিলেন। এখন অন্যরকম মানুষ। উনি এখন মাথাভাঙ্গা বিধানসভা কেন্দ্রে শাসকদলের প্রার্থী। আমার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী। তাই এই বিধানসভা নির্বাচনে আমাদের লড়াইটা যেমন তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে হচ্ছে, ঠিক তেমনি গিরীন্দ্রনাথ বর্মনের সঙ্গে হচ্ছে।’