বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা, অভিযোগে বিদ্ধ তৃণমূল

85

বর্ধমান: নির্বাচনী জনসভা থেকে ফেরার পথে বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠল তৃণমূলের দিকে। অভিযোগ, সভা থেকে ফেরার পথে বিজেপি কর্মীদের ট্র্যাক্টর থেকে নামিয়ে মারধর করা হয়। একজনের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ ওঠে। ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার রাতে তীব্র চাঞ্চল্য় ছড়িয়েছে জেলার মন্তেশ্বর থানা এলাকার মোজাহার নগরে। এদিকে ঘটনার পরেই পুলিশ সেখানে পৌঁছোয়। বিজেপির তরফে অভিযোগ জানানো হয়। অভিযোগের প্রেক্ষিতে হামলাকারীদের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ।

বিজেপি সূত্রে খবর, পূর্বস্থলী উত্তর বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী গোবর্ধন দাসের সমর্থনে মন্তেশ্বরের বামুনপাড়ায় নির্বাচনি জনসভা আয়োজিত হয়। প্রার্থী গোবর্ধন দাস ছাড়াও সভায় যোগ দেন বিজেপির তপশিলী মোর্চার রাজ্য সভাপতি দুলাল বর, জেলা সভাপতি সুজিৎ মজুমদার সহ অন্যান্য নেতা-নেত্রীরা। দলীয় নেতৃত্বদের পাশাপাশি সভায় যোগ দিয়েছিলেন বিজেপির বুথ সভাপতি বাবু সরকার, দোদন মাঝি, বিরাজ মাঝি ছাড়াও মন্তেশ্বরের একাধিক কর্মী। সভা শেষে রাতে ট্র্যাক্টরে চেপে বাড়ি পথে রওনা দেন সকলেই। অভিযোগ, মন্তেশ্বরের মোজাহার নগর এলাকায় তৃণমূল কর্মীরা পথ আটকায়। এরপর ট্র্যাক্টর থেকে নামিয়ে বিজেপি কর্মীদের মারধর করা হয়। ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে মন্তেশ্বর হাসপাতালে  পাঠানো হয়েছে।

- Advertisement -

বিজেপি নেতা সঞ্জীব হাজরা এবং সুপ্রকাশ মণ্ডল জানান, আচমকাই তাঁদের ওপর হামলা করে তৃণমূলের লোকজন। ঘটনায় একাধিক বিজেপি কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেন তাঁরা।

যদিও পূর্বস্থলী উত্তর বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থী তপন চট্টোপাধ্যায় অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘বিজেপির লোকজন সব জায়গায় নিজেদের মধ্যে মারপিট করে বেড়াচ্ছে। এদিনের ঘটনাও হয়তো তেমনই ঘটেছে। আসল ঘটনা আড়াল করতে বিজেপি নেতারা তৃণমূলের ওপর দোষ চাপাচ্ছে।’