কৃষক স্বার্থে এবার একসুরে বিজেপি-কংগ্রেস

272

নকশালবাড়ি: এবার কৃষক স্বার্থে একসুরে বিজেপি-কংগ্রেস। নকশালবাড়ি সুরজবর মৌজায় কৃষকদের জমি অধিগ্রহণ ইস্যুতে রাজ্যকে একহাত নিয়ে আন্দোলনের হুশিয়ারি দিলেন দু’দলেরই নেতৃত্বরা। একজন দার্জিলিং জেলা কংগ্রেসের সভাপতি তথা প্রাক্তন বিধায়ক শঙ্কর মালাকার, অন্যজন নকশালবাড়ি-মাটিগাড়ার বিধায়ক আনন্দময় বর্মন।

রবিবার ভারত-নেপাল সীমান্ত সংলগ্ন ধীমাল বস্তিতে কমিউনিটি কিচেনে যোগ দেন প্রাক্তন বিধায়ক শঙ্কর মালাকার। সেখানেই কৃষক স্বার্থে সুর চড়ান তিনি। তাঁর কথায়, আমরা বরাবরই কৃষকদের উচ্ছেদের বিরুদ্ধে। কৃষকদের পেটে লাথি মেরে কোনও প্রকল্প আমরা রাজ্য সরকারকে করতে দেব না। কৃষকদের দাবিগুলি রাজ্য সরকারকে মানতে হবে। বিকল্প ব্যবস্থা করা না পর্যন্ত কৃষকদের সরানো যাবে না। তবে আমরা বিজেপির সাথে যৌথ আন্দোলন কোনও দিনই করব না। পাশাপাশি, এদিন নকশালবাড়ি-মাটিগাড়ার বিধায়ক আনন্দময় বর্মন ভারত-নেপাল সীমান্তের সুরজবর মৌজার জমিগুলি পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন পর্বে এদিন বিধায়ককে হাতের কাছে পেয়ে তাঁদের অভাব অভিযোগের কথা তুলে ধরেন। পরিদর্শন শেষে কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে জমি অধিগ্রহণের প্রতিবাদ জানিয়ে আন্দোলনের ডাক দেন তিনি। বিধায়ক জানান, কৃষকদের উর্বর জমি বাদ দিয়ে অন্য জায়গায় গোর্খা ব্যাটালিয়নের সদরদপ্তর তৈরির দাবি আমি প্রশাসনিক স্তরে জানাব। জবরদস্তি করা হলে কৃষকদের নিয়ে আন্দোলনে নামব।

- Advertisement -

অন্যদিকে, অভিযোগের সুরে এদিন বিধায়ক বলেন, ‘জমির পাট্টা দেওয়ার নামে স্থানীয় তৃণমূল নেতারা কৃষকদের থেকে টাকা তুলেছেন। তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানানো হবে।’ যদিও বিধায়কের তরফে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল নেতৃত্বরা।