নিমতায় ‘আক্রান্ত’ বৃদ্ধার মৃত্যু, সুবিচারের দাবিতে সরব বিজেপি

97
ছবিটি সংগৃহীত

কলকাতা: নিমতায় বিজেপি কর্মীর ‘আক্রান্ত’ বৃদ্ধা মায়ের মৃত্যু। রবিবার গভীর রাতে নিজের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বছর ৮৫-এর শোভা রানী মজুমদার। বিজেপি কর্মীর মায়ের মৃত্যুর ঘটনায় তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে সুবিচারের দাবিতে সরব হয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব। উল্লেখ্য, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি বাড়িতে ঢুকে বিজেপি কর্মী গোপাল মজুমদার ও তাঁর মাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের লোকেদের বিরুদ্ধে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়, অসুস্থ থাকার কারণে ওই বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল কোনওভাবেই জড়িত নয়।

আক্রান্ত বৃদ্ধার ছবি সোশ্যাল মিডিয়া ভাইরাল হয়ে যায়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও টুইট করেন। এরপর গত ১ মার্চ ওই আক্রান্ত বৃদ্ধার বাড়িতে যান বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী ও অর্জুন সিং। তারপরই ওই বৃদ্ধাকে বাইপাসের একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতিও হয়। দিন চারেক আগে বাড়িতে ফিরেছিলেন তিনি। এরপর রবিবার রাতে মৃত্যু হয় ওই বৃদ্ধার। দ্বিতীয় দফার ভোটের আগে বৃদ্ধার মৃত্যু ঘিরে ফের শোরগোল পড়ে গিয়েছে বঙ্গ রাজনীতিতে।

- Advertisement -

বিজেপি কর্মীর মায়ের মৃত্য়ুর ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘বাংলার মেয়ে শোভা মজুমদারের মৃত্যুতে শোকার্ত। তৃণমূলের গুণ্ডাদের মারে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। এই পরিবারের দুঃখ, ব্যথা মমতা দিদিকে দীর্ঘদিন ভাবাবে।’

জেপি নাড্ডা টুইটে লিখেছেন, ‘নিমতার বৃদ্ধ ‘মা’ শোভা মজুমদারের আত্মার শান্তি কামনা করি। ছেলে গোপাল মজুমদার বিজেপি করার জন্য আজ তাঁকে প্রাণ দিতে হল। বিজেপি এই বলিদানকে সর্বদা মনে রাখবে। ইনি ও বাংলার ‘মা’ ছিলেন ইনি ও বাংলার ‘মেয়ে’ ছিলেন। বিজেপি সবসময় বাংলার মা ও মেয়েদের সুরক্ষার জন্য লড়াই করবে।’

বৃদ্ধার মৃত্যুর প্রসঙ্গে লকেট চট্টোপাধ্য়ায় বলেন, ‘এভাবে মাকে মেরে মৃত্যুর দিকে নিয়ে গিয়ে ওই মুখ্যমন্ত্রী বাংলার মেয়েদের থেকে ভোট চাইছেন কোন মুখে। তুষ্টিকরণের রাজনীতি চলছে গোটা রাজ্যে।’ পাশাপাশি, সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী।

যদিও এপ্রসঙ্গে দমদমের তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের যোগ নেই। বৃদ্ধা দীর্ঘদিন ধরে শয্যাশায়ী ছিলেন। অসুস্থতার জেরে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।’