তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা ছেঁড়ার অভিযোগ

208

তুফানগঞ্জ: তৃণমূল কংগ্রেসের ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছেড়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে নাককাটি গাছ গ্রাম পঞ্চায়েতের তালতলা এলাকায়। এই ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার বিকালে এক প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করে তৃণমূল কংগ্রেস। নেতৃত্ব দেন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা পিন্টু হোসেন। অন্যদিকে এদিন সন্ধ্যায় নাককাটি গাছ গ্রাম পঞ্চায়েতের বলরামপুর চৌপথী বাজারের বিজেপি কার্যালয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুভেচ্ছাবার্তা লাগানোকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায়। শেষে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এই দুই ঘটনায় একে অপরের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে দুই রাজনৈতিক দলই।

রবিবার নাককাটি গাছ গ্রাম পঞ্চায়েতের তালতলা এলাকায় বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেসের আলাদা বৈঠক ছিল। এই বৈঠক শেষে দুপক্ষের শ্লোগানে চাঞ্চল্য ছড়ায়। এরপরেই রাতে বিজেপি কর্মীরা তৃণমূল কংগ্রেসের ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছিড়ে ফেলে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে এদিন স্থানীয় তালতলা বাজারে এক প্রতিবাদ মিছিল করে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা। যদিও এই ঘটনায় তাদের দিকে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব। এদিকে এদিন সন্ধ্যার পর স্থানীয় বলরামপুর চৌপথি বাজারে বিজেপি কার্যালয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দিয়ে একটি ব্যানার লাগায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি। এরপরেই বিজেপি কর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পড়েন।

- Advertisement -

বিজেপি ৩১ নম্বর মণ্ডলের যুব সভাপতি সৌরভ দাস বলেন, শান্ত এলাকাকে অশান্ত করতেই আমাদের কার্যালয়ে ফেস্টুন লাগিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই ধরনের ঘৃণ্য পরিকল্পনা কেবল তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরাই করতে পারে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। পাশাপাশি এও জানাচ্ছি তালতলার ঘটনায় আমাদের কোনও কর্মীর যোগ নেই। তৃণমূল কংগ্রেসের তুফানগঞ্জ ১ ব্লক (বি) সভাপতি প্রদীপ বসাক বলেন, তালতলা এলাকায় আমাদের ফ্ল্যাগ ফেস্টুন ছিড়ে ফেলেছে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে এদিন এক মিছিলের আয়োজন করা হয়। এদিন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ থেকে সরকারি জায়গায় একটি দুর্গাপুজোর শুভেচ্ছাবার্তা লাগানো হয়। এই ঘটবার প্রতিবাদ করে এলাকা গরম করার চেষ্টা করে বিজেপি। যদিও পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এই ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও যোগ নেই।