বিজেপি নদী দেখেছে নদীর তরঙ্গ দেখেনি, তৃণমূলের বার্ষিক সম্মেলনে মন্তব্য রবীন্দ্রনাথ ঘোষের

111

তুফানগঞ্জ: বুধবার নাটাবাড়ি বিধানসভার অন্তর্গত অন্দরানফুলবাড়ি ২গ্রাম পঞ্চায়েতের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় তুফানগঞ্জ রেগুলেটেড মার্কেট চত্বরে। আগামী নির্বাচনকে পাখির চোখ করেই এই সম্মেলন। প্রায় দেড় হাজার তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থন উপস্থিত থেকে অধীর আগ্রহে মন্ত্রীর কথা শুনেছেন।

মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার প্রতিটি মানুষের জন্য, উন্নয়নের জন্য সর্বদা লড়াই করে চলেছে। দুয়ারে সরকারে ১৫ লক্ষ বিভিন্ন ভাতার জন্য আবেদন জমা পড়েছে। বেশিরভাগ আবেদন কারীর অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকে গেছে। যাদের এখনও ঢোকেনি তাদেরও ঢুকে যাবে। এছাড়াও ৭০টির বেশি প্রকল্পে ছাত্রছাত্রী থেকে শুরু করে সকলেই নানারকম সুবিধা ভোগ করছে। বাংলার উন্নয়নের কথা, বিভিন্ন প্রকল্পের কথা প্রতিটি বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তুলে ধরার পরামর্শ দিয়েছেন কর্মীদের।’

- Advertisement -

পাশাপাশি বিজেপিকে তুলোধোনা করতেও ছাড়েননি। বিজেপির উদ্দেশ্যে বলেন, বিজেপি নদী দেখেছে, নদীর তরঙ্গ দেখেনি। এবার তরঙ্গ দেখবে। আরও বলেন, ‘বিজেপি বাংলাকে গুজরাত বানাতে চাইছে। বাংলার মনীষীদের অসম্মান করছে। কিছু দিন আগে আপনারা বিজেপির রথ দেখেছেন। সেই রথ আসলে বিজেপির থাকার, খাওয়ার, প্রস্রাব করা, পানের পিক ফেলার, রাত্রে মদ, মাংস খাওয়ার ব্যবস্থাপনা। প্রতিক্ষেত্রে জয়শ্রীরাম ধ্বনি। তাঁরা বাংলায় হিন্দু মুসলিম সম্প্রতি ভাঙতে জানে।’

গত লোকসভা নির্বাচনে তাদের ভোট দেওয়ার ফলস্বরূপ জিনিসপত্রের আকাশছোঁয়া দাম। গ্যাস, পেট্রোল, ডিজেল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম আকাশছোঁয়া। কাজেই তৃণমূল কংগ্রেসকে বিপুল সংখ্যক ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন। তৃণমূলকে পালটা খোঁচা মারেন বিজেপি।

বিজেপির জেলা সহসভাপতি পুষ্পেন সরকার বলেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস ভাঁওতা দিতে জানে,বাংলার মানুষকে টুপি পরাতে চায়। তাঁদের ভাঁওতাবাজি বাংলার মানুষ বুঝে গিয়েছে। শিক্ষিত বেকারেরা আজ হতাশায় ভুগছেন। কাজেই এবার বিজেপি বাংলায় আসছে।’